খাদ্যসামগ্রী বাসায় পৌঁছে দিতে ডিএসসিসির হটলাইন চালু

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:২২, এপ্রিল ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৪, এপ্রিল ০২, ২০২০

হটলাইন সেবায় ডিএসসিসির কর্মকর্তারাকরোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে রাজধানীতে জনসমাগম নিষিদ্ধ করায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। ফলে বন্ধ হয়ে গেছে আয়ের উৎস। দুঃসহ হয়ে উঠেছে জীবিকা নির্বাহ। এই অবস্থায় সরকারসহ বিভিন্ন সংস্থা থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। তবে এমন অনেক লোক রয়েছেন, যারা লোকলজ্জায় লাইনে দাঁড়িয়ে খাদ্যসামগ্রী নিতে চান না। তাদের জন্য হটলাইন চালু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। হটলাইনে দেওয়া নির্ধারিত নাম্বারে ফোন করলেই সময় মতো বাসায় খাদ্য পৌঁছে দেবে ডিএসসিসির কর্মীরা।

ডিএসসিসি সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ করোনা পরিস্থিতিতে ৫০ হাজার মানুষকে খাওয়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন। এ ঘোষণার পর ডিএসসিসির প্রতিটি ওয়ার্ডে কর্মহীন, হত-দরিদ্রের তালিকা করে খাদ্যসামগ্রী সহায়তা কার্যক্রম শুরু করে সংস্থাটি। কিন্তু যারা লোকলজ্জায় তালিকায় নাম দিতে আগ্রহী নন, কিংবা লাইনে দাঁড়িয়ে খাদ্যসামগ্রী নিচ্ছেন না, তাদের কথা ভেবে হটলাইন চালু করেছে ডিএসসিসি।

ডিএসসিসি এলাকার অসহায়দের কেউ খাদ্যসামগ্রীর সহায়তা পেতে চাইলে ০১৭০৯৯০০৭০৩ ও ০১৭০৯৯০০৭০৪ এই দুটি নাম্বার যোগাযোগের জন্য আহ্বান করেছে সংস্থাটি। সহায়তাপ্রত্যাশী কলদাতাদের তথ্য নিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হবে বাসায়।

হটলাইন সেল পরিচালনাকারী ও ডিএসসিসির সিস্টেম অ্যানালিস্ট আবু তৈয়ব রোকন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মেয়র স্যারের নির্দেশে হটলাইন সার্ভিস চালু করা হয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে এই পদ্ধতিতে ৩৬৯ জনকে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘মানবিক কারণে আমরা মানুষের পাশে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে দাঁড়াতে উদ্যোগ নিয়েছি। এরই অংশ হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডে স্থানীয় কাউন্সিলর ও আঞ্চলিক কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এ সবের মাঝেও যদি কেউ সহায়তা থেকে বাদ পড়েন, লোকলজ্জায় তালিকায় নাম না লেখান; কিন্তু তার সহায়তা প্রয়োজন—এমন ব্যক্তিদের কথা ভেবেই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

রাজধানীর বাসিন্দা কিন্তু সে উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাভুক্ত, এমন কেউ যদি কল দেন, তবে কি তিনিও সহায়তা পাবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে সাঈদ খোকন বলেন, ‘অবশ্যই মানবিক কারণে তিনিও সহায়তা পাবেন। তবে সেটি হয়তো করবো ওই অঞ্চলের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমন্বয় করে। কারণ সেখানেও মেয়র আতিক সাহেব সহায়তা দিচ্ছেন। তাই আমি মনে করি, এমন দুর্যোগকালে শুধু আমরা নয়, সব বিত্তবানরাও এগিয়ে আসবেন।’

 

/এএসএস/আইএ/

লাইভ

টপ