হাউজিংয়ের ঝোপ থেকে উদ্ধার নবজাতক সুস্থ আছে

Send
আমানুর রহমান রনি
প্রকাশিত : ০১:৩২, এপ্রিল ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:৩২, এপ্রিল ০৬, ২০২০

মোহাম্মদপুর থানা

একদিকে করোনা আতঙ্ক, অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা। তারপরও থেমে নেই অপরাধ। সম্প্রতি রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানার বসিলা এলাকার দয়াল হাউজিংয়ের একটি প্লটের ঝোপ থেকে একটি জীবিত মেয়ে নবজাতক উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিশুটির শরীরে পিঁপড়ার কামড়ের দাগ রয়েছে। পুরোপুরি সুস্থ হলে নবজাতককে সমাজসেবা অধিদফতরের কাছে হস্তান্তর করবে পুলিশ।

রবিবার (৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল আলীম বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘শুক্রবার (৩ এপ্রিল) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ থেকে একটি কল আসে আমাদের ডিউটি অফিসারের কাছে। মোহাম্মদপুরের বছিলার দয়াল হাউজিংয়ের ঝোপে নবজাতকের কান্না শুনতে পেয়ে তিনি ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়েছিলেন। এরপর পুলিশ সদস্যরা গিয়ে মেয়ে নবজাতকটিকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নবজাতক ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। সেখানে শিশুটির চিকিৎসা নিশ্চিত করা হয়। ’

এই ঘটনায় মোহাম্মদপুর থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) নুরুল ইসলাম একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

নুরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বসিলার দয়াল হাউজিংয়ে এখনও মানুষের বসবাস শুরু হয়নি। উন্নয়ন কাজ চলছে। কিছু প্লটে নিম্ন আয়ের মানুষ বসবাস করছেন। এই হাউজিংয়ের একটি ঝোপের মধ্যে নবজাতকটিকে দুটি ব্যাগের ভেতরে পাওয়া যায়। ওই ঝোপ থেকে দুইশ মিটার দূরে থাকা ইব্রাহীম নামে এক ব্যক্তি কান্নার শব্দ শুনতে পান। তিনি প্রথমে আন্দাজ করতে পারেননি যে- কোথা থেকে কান্না আসছে। তবে তিনি শোনার চেষ্টা করেন এবং এরপর ধীরে ধীরে ঝোপের দিকে এগুতে থাকেন। পরে আরও কয়েক ব্যক্তিকে নিয়ে ঝোপের মধ্য থেকে নবজাতকটিকে বের করেন। এরপর তারা ব্যাগ থেকে বের করে কাপড়ে পেঁচিয়ে নবজাতকটিকে নিয়ে আসেন। এরপর কী করবেন বুঝতে না পেরে ৯৯৯-এ ফোন দেন।'

পুলিশের ধারণা, রাতের কোনও এক সময়ে শিশুটিকে কেউ ওই ঝোপের মধ্যে ফেলে গেছে।

 

 

/এআরআর/এএইচ/

লাইভ

টপ