সীমিত পরিসরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৪৮, জুন ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩০, জুন ১৬, ২০২০






বিমানবন্দরে যাত্রীদের নির্দিষ্ট দূরত্বে দাঁড়ানোর ব্যবস্থাস্বাস্থ্যবিধি ও বেবিচকের নীতিমালা অনুসরণ করে মঙ্গলবার (১৬ জুন) থেকে সীমিত পরিসরে আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী এবার বিদেশফেরতদের করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট না থাকলে বিমানবন্দর থেকেই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হবে। তবে নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকলে বিদেশ ফেরতরা নিজের বাড়িতে গিয়ে থাকবেন হোম কোয়ারেন্টিনে। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে যে দেশে যাবেন, সেদেশের নিয়ম থাকলে সঙ্গে রাখতে হবে নেগেটিভ সার্টিফিকেট। তবে বিমানবন্দরে কোনও যাত্রীর শরীরের তাপমাত্রা বেশি হলে বিমানবন্দরেই প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। আন্তর্জাতিক রুটে চলাচলের ক্ষেত্রে যাত্রীদের জন্য এসব নির্দেশনার কথা জানিয়েছেন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ উল-আহসান ।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে গত ২১ মার্চ হতে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ক্ষেত্রে বিধি নিষেধ আরোপ শুরু হয়। ৮৬ দিন পর স্বাস্থ্যবিধি ও বেবিচকের নীতিমালা অনুসরণ করে মঙ্গলবার (১৬ জুন) থেকে সীমিত পরিসরে যুক্তরাজ্য ও কাতারে (ট্রানজিট) আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। তবে এসময়ে একমাত্র চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের ফ্লাইট চলাচল বন্ধ হয়নি।

সোমবার (১৫ জুন) রাত ২টা ১০ মিনিটের দিকে বিভিন্ন দেশ থেকে কাতার হয়ে ৩৩ জন যাত্রী নিয়ে হজরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট। রাত ৩টা ১০ মিনিটে ফিরতি ফ্লাইটে ২৭৪ জন নিয়ে চলে যায় কাতার এয়ারওয়েজ।

বিমানবন্দরের প্রবেশমুখে ছেটানো হচ্ছে জীবাণুনাশকআন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ক্ষেত্রে বিধি নিষেধ আরোপ শুরু হলে ২১ মার্চ হতে চীন, হংকং, থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য ব্যতীত সব ইউরোপীয় দেশ থেকে যাত্রী ও ১০টি দেশ থেকে বিমান চলাচলের নিষেধাজ্ঞার আরোপ করা হয়। পরবর্তীতে ১০টি থেকে বাড়িয়ে ১৬টি দেশ থেকে বিমান চলাচলের নিষেধাজ্ঞার আরোপ করা হয়। সেই ১৬ দেশ হচ্ছে বাহরাইন, ভুটান, হংকং, ভারত, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, ওমান, কাতার, সৌদি আরব, শ্রীলঙ্কা, সিংগাপুর, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই) ও যুক্তরাজ্য (ইউকে)।

সরকারি সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ওপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদও বাড়িয়েছিল বেবিচক। ১১ জুন বেবিচক ঘোষণা দেয় স্বাস্থ্যবিধি ও তাদের নীতিমালা অনুসরণ করে ১৬ জুন থেকে সীমিত পরিসরে যুক্তরাজ্য ও কাতারে আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচল শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে ঢাকা-যুক্তরাজ্য–ঢাকা যাত্রী পরিবহন করা যাবে। অন্য দিকে দোহা-ঢাকা-দোহা রুটে শুধুমাত্র ট্রানজিট যাত্রী পরিবহন করা যাবে।

এদিকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ওপর বিধি নিষেধ শিথিলে করে ফ্লাইট শুরুর জন্য বিমানবন্দরে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এয়ারলাইন্স ও যাত্রীদের জন্য নির্দেশনা জারি করেছে বেবিচক।

কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে কাতার এয়ারওয়েজ সপ্তাহে তিনটি এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা লন্ডন রুটে সপ্তাহে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। করোনা সংক্রমণ রোধে বিমানবন্দরে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যাত্রী ও এয়ারলাইন্স স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ করলেই করোনার বিস্তার প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। দুপুরে তিনি বিমানবন্দর পরিদর্শন করেন ও সার্বিক প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণ করেন।

বিমানবন্দরের ভেতরে স্প্রে করা হচ্ছে জীবাণুনাশকইতোমধ্যে বিমানবন্দরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা ও জীবাণুনাশক স্প্রে করার চেম্বার স্থাপন করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত বিমানবন্দরে জীবাণুমুক্ত করার কাজ চলমান রয়েছে। বিভিন্ন সময়ে বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকেও বিমানবন্দরে জীবাণুমুক্তকরণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এরআগেও করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জীবাণুনাশক ছেটানোর কার্যক্রম পরিচালনা করেছে বিমান বাহিনী।

শাহ‌জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ উল-আহসান বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমাদের কার্যক্রম চলমান আছে। আমাদের নিজস্ব উদ্যোগে নিয়মিত বিমানবন্দরের বিভিন্ন স্থান পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়। সীমিত পরিসরে ফ্লাইট চালু হয়েছে। যাত্রীদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে ফ্লাইটে যেতে পারবেন। যাত্রীদের প্রবেশের স্থানগুলো বিশেষভাবে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে।

ছবি: সাজ্জাদ

 

 

/সিএ/টিটি/

লাইভ

টপ