পুলিশের নির্যাতনে নিখিলের মৃত্যু: সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে দুই মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৯:০৯, জুন ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৯, জুন ২৫, ২০২০

 

নিখিল তালুকদারপুলিশি নির্যাতনে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার নিখিল তালুকদারের মৃত্যুর ঘটনায় কার্যকর তদন্ত ও দ্রুত বিচারের দাবিতে স্বরাষ্ট্র এবং আইন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন। বুধবার (২৪ জুন) বিকালে গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক ও আনজীবী জীবনানন্দ জয়ন্ত বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘পুলিশি নির্যাতনে নিখিলের মৃত্যু হয়েছে। আমরা এর সুষ্ঠু তদন্ত ও দ্রুত বিচারের দাবিতে ২৩ জুন দুই মন্ত্রণালয় স্মারকলিপি দিয়েছি।’

গত ২ জুন গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার রামশীল ইউনিয়নের রামশীল গ্রামের নীলকান্ত তালুকদারের ছেলে কৃষক নিখিল তালুকদার অপর তিন জনের সঙ্গে রামশীল বাজারের ব্রিজের পূর্বপাশে বসে তাস খেলছিলেন। এসময় কোটালীপাড়া থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শামিম হাসান ভ্যানচালক এক যুবককে সঙ্গে নিয়ে সেখানে যান। এএসআই গোপনে তাস খেলার দৃশ্য ভিডিওতে ধারণ করতে থাকলে নিখিল তালুকদারসহ অন্যরা তা দেখে ফেলেন। নিখিলের সঙ্গীরা দৌড়ে পালিয়ে গেলেও এএসআই শামিম হাসান তাকে আটক করে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে তার হাঁটু দিয়ে পেছন থেকে নিখিলের পিঠে আঘাত করলে তিনি মারাত্মকভাবে আহত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।পুলিশের এএসআই শামিম হাসান

এ ঘটনায় গত ৭ জুন কোটালীপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়। তবে মামলার অগ্রগতি নিয়ে এক ধরনের অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে বলে দাবি করেছে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন। তাই পাঁচ দফা দাবিতে তারা স্বরাষ্ট্র এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি পাঠিয়েছে।

স্মারকলিপিতে নিখিল তালুকদার হত্যাকাণ্ডে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার বিপরীতে যে সব প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে, সেগুলো দূর করতে মন্ত্রীদের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পুলিশি নির্যাতন এবং নির্যাতনজনিত মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত অভিযোগটি সংশ্লিষ্ট আইনের আওতায় নিয়ে যথাযথ তদন্ত করে অপরাধীদের কঠোর প্রদানের আহ্বান জানিয়ে বলা হয়-

১) দণ্ডবিধি আইনে রুজুকৃত নিখিল তালুকদার হত্যা মামলাটি যথাযথ প্রক্রিয়ায় ‘নির্যাতন এবং হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইন, ২০১৩’ এ অন্তর্ভুক্ত করে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের পদক্ষেপ গ্রহণ;

২) ন্যায়বিচারের লক্ষ্যে প্রচলিত পদ্ধতিগত ও মূল আইনের যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করে আসামিদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিতে পদক্ষেপ;

৩) হত্যা মামলা আপোষ নিষ্পত্তির চেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ;

৪) হত্যা মামলার আপোষ নিষ্পত্তিতে বেআইনি পদক্ষেপ গ্রহণ ও পেশাগত অসদাচরণের দায়ে এবং ন্যায়বিচার নিশ্চিতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আশ্বস্ত না করতে পারার ব্যর্থতায় কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ;

৫) মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর।

এই পাঁচ দফা দাবিসহ স্মারকলিপি সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ,  বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট পারভেজ হাসেম, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক অ্যাডভোকেট জীবনানন্দ জয়ন্ত বাংলাদেশ সচিবালয়ের কেন্দ্রীয় পত্রগ্রহণ ও অভিযোগ শাখায় জমা দেন।

আরও পড়ুন- 

কৃষক নিখিলের মৃত্যু: পুলিশের বিরুদ্ধে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি 

চাঞ্চল্যকর নিখিল হত্যা মামলায় পুলিশের এএসআই গ্রেফতার

পুলিশের আঘাতে মৃত্যু, ৫ লাখ টাকায় মীমাংসার অভিযোগ

নিখিল হত্যা মামলায় পুলিশের এএসআই ও সোর্স কারাগারে

 

/এআরআর/এফএস/

লাইভ

টপ
X