দুই প্রতারকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ ভূমি মন্ত্রণালয়ের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৫৪, জুলাই ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৬, জুলাই ১৫, ২০২০

উকিল রায় এবং সায়েম হোসেন নামে দুই প্রতারকের বিরুদ্ধে রাজধানীর পল্টন মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ভূমি মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মাক্ছুদুর রহমান পাটওয়ারীর নির্দেশে বুধবার (১৫ জলাই) এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্ততে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উল্লিখিত দুই প্রতারকের মধ্যে উকিল রায় ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবের স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে এবং সায়েম হোসেন ভূমি সচিবের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে টাকা-পয়সা হাতিয়ে নিচ্ছে। তাদের দুজনেরই বাড়ি লালমনিরহাটে। উকিল রায় পেশায় একজন ‘কথিত শিক্ষক’ বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এই দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ রয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও  বলা হয়, গত ১২ জুলাই একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সংবাদে ‘সই জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। উক্ত প্রতিবেদন তৈরির সময় প্রতারণার ঘটনা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট রিপোর্টারের নেওয়া ভূমিমন্ত্রীর মতামতও প্রচারিত হয়। পরদিন ১৩ জুলাই উক্ত প্রতারণা সংশ্লিষ্ট ঘটনার সত্যতা যাচাই করার জন্য ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী নির্দেশ প্রদান করেন।

এরপর ভূমি সচিব মো. মাক্ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বিষয়টি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে সংশ্লিষ্ট শাখাকে নির্দেশ প্রদান করেন। প্রতারণা সংঘটিত হওয়ার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় ভূমি সচিবের নির্দেশে মন্ত্রণালয় পল্টন থানায় এই অভিযোগ দায়ের করে।

মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, ভূমি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কম্পিউটার অপারেটরসহ অন্যান্য পদে গত দুই বছরেরও অধিক সময় ধরে কোনও নিয়োগ কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়নি। ‘আউট সোর্সিং’-এর মাধ্যমেও এসব  পদে কোনও নিয়োগ প্রদান করা হয়নি। প্রচারিত সংবাদে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয়দানকারী সায়েমের সঙ্গে  ভূমি মন্ত্রণালয়ের কোনও সম্পৃক্ততা নেই। তিনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের কোনও কর্মচারীও নন। ভূমি মন্ত্রণালয় মনে করে, এই ব্যক্তি একজন ঠগ ও জালিয়াতকারী। একইভাবে জনৈক উকিল রায়ও ভূমি মন্ত্রণালয়ের নামে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে জালিয়াতি করে টাকা গ্রহণ করছেন বলে প্রতীয়মান। ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিবের স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করা একটি গুরুতর ও দণ্ডনীয় ফৌজদারি অপরাধ। 

উল্লেখ্য, ভূমি মন্ত্রণালয় কিংবা এর আওতাধীন দফতর বা সংস্থায় চাকরি প্রদানের নাম করে কেউ যদি অর্থ দাবি করে, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করার জন্য নাগরিকদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে মন্ত্রণালয় থেকে। ভুয়া নিয়োগে বিভ্রান্ত না হয়ে সতর্ক থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিকভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ভূমি মন্ত্রণালয় বেশ কয়েকবার সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

 

/এসআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ