গবেষণা জালিয়াতি: ঢাবি’র ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনাল গঠন

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৪৫, অক্টোবর ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৫৩, অক্টোবর ২৯, ২০২০

অন্যের গবেষণা নকল করার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নির্বাহী ফোরাম ‘সিন্ডিকেট’। বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষকরা হলেন, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সামিয়া রহমান, অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজান এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ ওমর ফারুক।

সামিয়া রহমান ও সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের ব্যাপারে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনালে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন আইন অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক ড. রহমাতুল্লাহ। বাকি দুই সদস্যের মধ্যে একজন সিনেট প্রতিনিধি ও অন্যজন অভিযুক্ত শিক্ষকদের পক্ষ থেকে মনোনিত হবেন।

প্রসঙ্গত, প্রায় তিন বছর আগে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সামিয়া রহমান এবং ক্রিমিনোলজি বিভাগের প্রভাষক সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজানের বিরুদ্ধে গবেষণায় লেখা চুরি বা প্লেজারিজমের অভিযোগ ওঠে। তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি ওই দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে গবেষণা চুরির প্রমাণ পেলেও কোনও শাস্তির কথা উল্লেখ করেনি। তাই সিন্ডিকেটে গঠিত ট্রাইব্যুনাল এই প্লেজারিজমের অভিযোগে কী শাস্তি দেওয়া যায়, তা নির্ধারণ করবে।

এছাড়াও একই অভিযোগে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ ওমর ফারুকের ডিগ্রি বাতিল করা হয়েছিল। তার শাস্তির ব্যাপারেও ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

/এসআইআর/এনএস/

লাইভ

টপ