সাক্ষাৎকারে ঢাকা কলেজ ছাত্রদল সভাপতিক্যাম্পাসে সহাবস্থান চায় না ছাত্রলীগ

Send
চৌধুরী আকবর হোসেন
প্রকাশিত : ১৩:৪১, এপ্রিল ১৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪৯, এপ্রিল ১৯, ২০১৬

 ঢাকা কলেজ ছাত্রদল সভাপতি কাজী মাসুদ করিম ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে সহাবস্থান চায় না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা কলেজ ছাত্রদল সভাপতি কাজী মাসুদ করিম। ক্যাম্পাসে সহাবস্থান না থাকায় ছাত্রশিবির রাজনীতি করার সুযোগ পাচ্ছে বলেও মনে করেন তিনি। বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে একান্ত আলাপে তিনি এসব কথা বলেন।

 বাংলা ট্রিবিউন:ক্যাম্পাসে  আপনাদের অবস্থান নেই কেন ?

 কাজী মাসুদ করিম:আমরা চাই ক্যাম্পাসে সবাই গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে অবস্থান করি। কিন্তু ছাত্রলীগ  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনৈতিক সহাবস্থান বিলুপ্ত করেছে। এখন ছাত্রদলের কেউ ক্লাস, পরীক্ষায়ও অংশ নিতে পারছেন না। ক্যাম্পাসে অধ্যক্ষও আমাদের সহযোগিতা করছেন না, বরং বলছেন, উপরের চাপ আছে। শুধু ছাত্রদল করার অপরাধে কেউ ক্যাম্পাসে গেলে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।

 আরও পড়ুন: ইন্টারনেটকেন্দ্রিক অপরাধ শহরের চেয়ে গ্রামে বেশি

বাংলা ট্রিবিউন: ছাত্রলীগ কেন সহাবস্থান চাইছে না বলে মনে করছেন ?

 কাজী মাসুদ করিম: ক্যাম্পাসে ছাত্রদল থাকলে সাধারণ ছাত্রদের অধিকার নিয়ে কথা বলবে। ছাত্রদের নানা সমস্যা নিয়ে আন্দোলন করবে। তখন ছাত্রদল ক্যাম্পাসে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে। ছাত্রলীগ ইমেজ সংকটে পড়বে, কর্মী পাবে না তারা। এজন্য ছাত্রলীগ আমাদের ক্যাম্পাসে উপস্থিতি চায় না। তাদের সঙ্গে প্রশাসনও আমাদের নানাভাবে হয়রানি করছে। এবার একুশে ফেব্রুয়ারিতে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে ফুল দিতে চেয়েছিলাম, সেটারও অনুমতি দেননি অধ্যক্ষ। 

বাংলা ট্রিবিউন: রাজনৈতিক ছাত্র সংগঠনের নেতারা সাধারণ ছাত্রদের নিয়ে কথা বলে এমন নজির তো নেই ?

কাজী মাসুদ করিম কাজী মাসুদ করিম: ছাত্রদল বরাবরই সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার নিয়ে কথা বলে, আন্দোলন করে। এবারও আমরা তনু হত্যার বিচারের দাবিতে প্রত্যেক ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছি। তবে ছাত্রদল মাঠে নামলে পুলিশ বাধা দেয়, হয়রানি করে। এজন্য আমরা  ছাত্রদলের ব্যানারে না করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দিয়েছি। আমাদের দলের চেয়ারপারসনের নির্দেশনাও রয়েছে ক্যাম্পাসভিত্তিক ইস্যুতে যেন সক্রিয় থাকি।

বাংলা ট্রিবিউন: আপনারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন ক্যাম্পাসে মহড়া দেবেন বলে শোনা যাচ্ছে, আসলে আপনাদের পরিকল্পনা কী ?

কাজী মাসুদ করিম: আসলে আমরা ক্যাম্পাসে সহাবস্থান চাই,এটা আগেই বলেছি। আমি দায়িত্ব পাওয়ার পর আমাদের কলেজের ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, আমাদের নিজ দায়িত্বে ক্যাম্পাসে আসতে হবে, কোনও ঘটনার দায় তিনি নেবেন না। ছাত্রলীগের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা বলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদল ঢুকতে পারলে ঢাকা কলেজসহ অন্যান্য ক্যাম্পাসেও পারবে। অর্থাৎ  তারা গণতান্ত্রিক সহাবস্থান চায় না। এজন্য ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হয়েছে। আমাদের কমিটি  এ মাসে পূর্ণাঙ্গ হলে মে মাসেই ক্যাম্পাসে যাবো।

বাংলা ট্রিবিউন: ছাত্রদল সহিংস আন্দোলন করে, এ অভিযোগ কেন ?

আরও পড়ুন: ‘অনিবন্ধিত সিম চিরতরে বন্ধ করা হবে’

কাজী মাসুদ করিম: এটা রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের মিথ্যাচার। ছাত্রদল সহিংসতায় বিশ্বাস করে না। বরং ছাত্রদলের মিছিলে গুলি করে পুলিশ অনেক ছাত্রকে আহত করছে। ছাত্রলীগ হামলা চালিয়ে অনেক ছা্ত্রকে পঙ্গু করে দিয়েছে এমন নজির আছে। ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে অনেক ছাত্র নিহত হয়েছেন এমন ঘটনাও ঘটেছে।

বাংলা ট্রিবিউন: ঢাকা কলেজে ছাত্রদলের চেয়ে ছাত্রশিবির সক্রিয় বেশি কেন ?

কাজী মাসুদ করিম: ছাত্রশিবির আন্ডারগ্রাউন্ডে রাজনীতি করে। তাদের কে নেতা, কে কর্মী কেউ জানে না। ফলে তাদের ক্যাম্পাসে থাকা না থাকা নিয়ে কেউ প্রশ্ন করে না। কিন্তু ছাত্রদলের প্রতিটি ছেলে প্রকাশ্যে রাজনীতি করে, তাদের সবাই চেনে। এ কারণে ছাত্রদলের কেউ ক্যাম্পাসে গেলে হামলার শিকার হয়। ছাত্রশিবিরের সঙ্গে আমাদের কোনও সখ্যতা নেই। শিবিরের সঙ্গে আদর্শগত বিরোধ আছে। শিবির ছাত্রদের টার্গেট করে নানা সুবিধা দিয়ে নিজেদের দলে টানে।

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

 সিএ/এমএসএম / আপ- এপিএইচ/

লাইভ

টপ
X