ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা আত্মহত্যার শামিল: গয়েশ্বর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:৩১, অক্টোবর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৩৩, অক্টোবর ১৬, ২০১৯

স্মরণসভায়  ২০ দলীয় জোটের নেতারা ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা আত্মহত্যার শামিল উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আজ দেশে কোনও ছাত্র রাজনীতি নেই বলেই তা বন্ধের কথা হচ্ছে। যদি ছাত্র রাজনীতি থাকতো তাহলে বন্ধের কথা উঠতো না। বরং ছাত্র রাজনীতির নামে যে অপরাজনীতি হচ্ছে, সেটা বন্ধ করা উচিত।’

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উপাচার্যরা দেহত্যাগ করলেও পদত্যাগ করবেন না এমন অবস্থা দাঁড়িয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। ভারতের সঙ্গে চুক্তি বাতিল ও বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যার প্রতিবাদে এ স্মরণসভার আয়োজন করে ২০ দলীয় জোট।
সভায় জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেন, ‘বলা হচ্ছে শিবির করার জন্য আবরারকে হত্যা করা হয়েছে। ধরে নিলাম তিনি শিবির করতেন, তার মানে কি এই দাঁড়াবে যে শিবির করলে তাকে মেরে ফেলতে হবে।’ বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থার বিরুদ্ধে সংগ্রাম হওয়া দরকার মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা, সিলেবাস, কারিকুলাম সবকিছু নতুন করে ঢেলে সাজাতে হবে। তা না হলে এই শিক্ষাব্যবস্থায় যারা ঢুকবে তারা মানবিক না হয়ে পশুরূপে বের হবে। যে শিক্ষাব্যবস্থা সন্তানদের পশুরূপে বের করে, আমার মনে হয় সেই শিক্ষাব্যবস্থার বিরুদ্ধে সংগ্রাম হওয়া দরকার।’
সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, জাতীয় পার্টির মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান রেজা প্রমুখ।

/এইচএন/ওআর/এমওএফ/

লাইভ

টপ