বাজার অস্থিরে ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:০৭, নভেম্বর ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৪, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

দেশে লবণ, চালের কোনও ঘাটতি নেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, দেশে চাল-লবণের পর্যাপ্ত মজুত আছে। যারা বাজার অস্থির করতে ষড়যন্ত্র করছে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) রাতে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। এ সময় তিনি গুজবে কান না দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

দেশে লবণ সংকট নিয়ে গুজবের প্রেক্ষাপটে ওবায়দুল কাদের এই জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডাকেন।
তিনি বলেন, ‘লবণ-চালের সংকটের বিষয়টি স্রেফ গুজব। গুজব ছড়িয়ে দেশের রাজনীতিতে অস্থিতিশীলতা ডেকে আনার চক্রান্তের বিষয়টি আমরা তদন্ত করছি। আমরা পরিষ্কার বলতে চাই, যারা এটা করছে তাদের কারও রেহাই নেই। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গুজব সৃষ্টি করে লবণের দাম ‍বৃদ্ধির ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। বাজারে অস্থিরতা ও অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এই অপচেষ্টা থেকে কেউ কেউ রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে চাচ্ছে। সংকট সৃষ্টি করে তারা গুজব ছড়াচ্ছে। এই গুজবের ডালপালা গজাচ্ছে। আর এতে উসকানি দিচ্ছে একটি বিরোধী দল ও তাদের নেতারা। এটা পরিষ্কার, এই মহলটি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি করতে চায়। এরই মধ্যে আওয়াজ তুলেছে তারা আগাম নির্বাচন চায়। মামাবাড়ির আবদারের মতো তাদের আগাম নির্বাচন চাওয়ার বক্তব্য প্রতিধ্বনিত হচ্ছে।’
লবণ সংকটের গুজব তদারকির জন্য সরকারের উচ্চপর্যায়ের কমিটি কাজ করছে উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘কোনও অসাধু ব্যবসায়ী লবণের দাম বেশি নিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মূল্য বেশি নিলে ০২৯৫৭৩৫০৫ ও ০১৭১৫২২৩৯৪৯ নম্বরে ফোন করে জানানোর অনুরোধ করেন তিনি।

চালের সংকটের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দেশে চালের যথেষ্ট মজুত রয়েছে। দেশের মাথাপিছু চাহিদা অনুযায়ী ২ কোটি ৭৬ লাখ মেট্রিক টন চালের প্রয়োজন পড়ে। চালের কোনও সংকট এই মুহূর্তে নেই। উপরন্তু সরকারি খাদ্য গুদামে এখন ১৪ লাখ মেট্রিক টন মজুত রয়েছে, যা অন্যান্য বছরের তুলনায় দ্বিগুণ।’ এছাড়া সরকার আগামীকাল থেকে ধান কেনার কার্যক্রম শুরু করবে বলেও জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাংলাদেশের কোথাও মোটা চালের দাম এক পয়সাও বাড়েনি। শুধু রাজধানীসহ কিছু কিছু জায়গায় চিকন চালের দাম বেড়েছে। সেটাও বেশি নয়। বাজার তদারকি করা হচ্ছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যারা অপপ্রচারে লিপ্ত তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

গুজব প্রতিরোধে গণমাধ্যমকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘গুজবে যা দেখবেন তা-ই লিখবেন। বাজার প্রভাবিত হয় এমন সংবাদ পরিবেশনে আপনারা বিরত থাকবেন। অসাধু ব্যবসায়ীদের স্বার্থ হাসিল হয়, এমন কোনও সংবাদ পরিবেশন করবেন না। তাদের মুখোশ জাতির সামনে উন্মোচন করবেন।’

নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের প্রতিবাদে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির কর্মবিরতি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘তারা আর কিছুক্ষণের মধ্যে আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। আমি আশা করবো তাদের সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।’ এ সময় তিনি পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, শাস্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে আপনারা সহনশীল হবেন। আমরা কাউকে শাস্তি দিতে চাই না। আইনের আওতায় আনতে চাই, এটা সবার জন্য জরুরি।’

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুল মতিন খসরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল হক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

/ইএইচএস/এইচআই/এমওএফ/

লাইভ

টপ