জামায়াত থেকে সাবেক সচিব সোলায়মান চৌধুরীর পদত্যাগ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৩৯, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪১, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরীজামায়াতে ইসলামী থেকে পদত্যাগ করেছেন সাবেক সচিব এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরী। মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরে দলের আমির ডা. শফিকুর রহমানের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠান তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলা ট্রিবিউনকে সোলায়মান চৌধুরী বলেন, ‘একান্তই ব্যক্তিগত কারণে পদত্যাগ করেছি। এর বেশি কিছু আপাতত বলতে পারছি না।’

দলের আমিরকে লেখা পদত্যাগপত্রে সোলায়মান চৌধুরী বলেন, ‘আশা করি ভালো এবং সুস্থতার সাথে আপনার উপর অর্পিত দায়িত্ব আমানতদারিতার সাথে পালন করছেন। আমি এ.এফ.এম সোলায়মান চৌধুরী অদ্য ১০ ডিসেম্বর-২০১৯, মঙ্গলবার বেলা ১টা ৫০ মিনিটে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সদস্য পদে ইস্তফা প্রদান করলাম এবং সংগঠনের সকল দায়িত্ব ও পদ থেকে পদত্যাগ করলাম।’

পত্রে আমিরের ‘সুস্বাস্থ্য ও সর্বাঙ্গীণ কল্যাণের’ জন্য দোয়া কামনা করেন সাবেক এই আমলা। তার ঘনিষ্ঠরা জানান, সোলায়মান চৌধুরী ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সচিব, পাটকল সংস্থার চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম ওয়াসা চেয়ারম্যান, জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান, পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের চেয়ারম্যান, রাষ্ট্রপতির সচিবসহ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। সর্বশেষ রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান পদ থেকে তিনি অবসরে যান।এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরীর পদত্যাগ পত্র

সোলায়মান চৌধুরীর একাধিক ঘনিষ্ঠজন বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, গত ৩ ডিসেম্বর জামায়াত থেকে বহিষ্কৃত মজিবুর রহমান মনজুর নেতৃত্বাধীন ‘জন আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ’ এর কার্যালয়ে বিশিষ্ট নাগরিকদের সুধী সমাবেশে অংশ নেন সোলায়মান চৌধুরী। এরপর জামায়াতের উচ্চপর্যায় থেকে তাকে ডেকে পাঠানো হয়।

একটি সূত্রের দাবি, গত ৫ ডিসেম্বর জামায়াতের শীর্ষ পর্যায়ের এক নেতা সোলায়মান চৌধুরীকে ডেকে নিয়ে তাকে কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য করা হয়েছে বলে জানান। পরে ৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে ‘জন আকাঙ্ক্ষার’ একটি আঞ্চলিক কর্মশালায় যোগ দেন তিনি। এরপর জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকে নিয়ে সমালোচনা করেন।

এরই ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার দুপুরে দল থেকে পদত্যাগ করলেন সোলায়মান চৌধুরী। ‘জন আকাঙ্ক্ষায়’ যোগ দিচ্ছেন কিনা জানতে চাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে সোলায়মান চৌধুরী বলেন, ‘এখনও এটা নিয়ে বলতে পারবো না। সময় হলে জানতে পারবেন।’

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে জামায়াত থেকে পদত্যাগ করেন দলের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাক। এরপর দল থেকে বহিষ্কার করা হয় মজিবুর রহমান মনজুকে। একইসঙ্গে সারাদেশের বিভিন্ন কমিটি থেকে কয়েকজন নেতা পদত্যাগ করেন। এছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এনায়েত উল্লাহ পাটোয়ারীও কিছুদিন আগে জামায়াত থেকে পদত্যাগ করেছেন বলে জানান ‘জন আকাঙ্ক্ষার’ একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য।

/এসটিএস/এফএস/এমএমজে/

লাইভ

টপ