মুজিববর্ষ উদযাপনে আমন্ত্রণ পাবে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩০, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫৫, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০




 মুজিববর্ষে বাংলাদেশ ‘ব্র্যান্ড’ ফোকাস করতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, মুজিববর্ষ উদযাপনে বিএনপির পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার পক্ষের সব রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। কারণ, বঙ্গবন্ধু সবার, কোনও দলের নয়। মুজিববর্ষ উদযাপনের মাধ্যমে দেশে-বিদেশে বাংলাদেশ ‘ব্র্যান্ড’ ফোকাস করা হবে। এটাই হবে মুজিববর্ষ উদযাপনের স্পিরিট।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের যৌথসভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সবার। বঙ্গবন্ধু আমাদের ইতিহাসের মহাবীর, মহানায়ক। বঙ্গবন্ধু কোনও দলের নয়, গোটা বাংলাদেশের। তাকে নিয়ে আমরা দলীয়করণ করতে চাই না। তার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সব রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

এসময় সাংবাদিকরা নির্দিষ্ট করে বিএনপির নাম জানতে চাইলে তিনি বলেন, মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা অনুষ্ঠানেও বিএনপি আমন্ত্রিত ছিল। জন্মশতবার্ষিকী পালনের অনুষ্ঠানেও আমন্ত্রণ করা হবে। ক্ষণগণনায় বিএনপি উপস্থিত ছিল না উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা কেন উপস্থিত ছিল না, জানি না। জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও আমন্ত্রণ জানাবো। আসবে কিনা বলতে পারছি না।

তবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কোনও দল-গোষ্ঠী বা শক্তিকে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে শামিল করতে চান না বলে জানান তিনি।

১৭ মার্চ মুজিববর্ষ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে জাতীয় কমিটি ও জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির তিন জন প্রতিনিধি এ যৌথসভায় উপস্থিত ছিলেন। এতে দলীয় নেতাদের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনগুলোর শীর্ষ নেতারা অংশ নেন।

মুজিববর্ষ উদযাপনে বাংলাদেশ ব্র্যান্ডকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, মুজিববর্ষে আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংগ্রাম, সাফল্য, উন্নয়ন, অর্জন ফোকাস হবে। দেশে-বিদেশে আমাদের বাংলাদেশ হবে ‘ব্র্যান্ড’। বাংলাদেশ ব্র্যান্ডকে আমরা ফোকাস করবো। সংগ্রাম, আন্দোলন, ইতিহাস, সাফল্য, উন্নয়ন ও অর্জন সবকিছু এখানে আসবে।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আমাদের চিন্তাভাবনা, আমাদের আদর্শ এসব কিছু নিয়ে পুরো বছর সুনামগঞ্জ থেকে সুন্দরবন, টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া পর্যন্ত সবাইকে অনুপ্রাণিত করা হবে, উজ্জীবিত করা হবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২২ ও ২৩ মার্চ মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন হবে। জাতীয় সংসদ থেকে সব সংসদ সদস্য ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে একযোগে শ্রদ্ধা জানাবেন।

সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন শফিক, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, সাঈদ খোকন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

/এমএইচবি/টিটি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ