জনগণকে ঘরে রেখে উপনির্বাচন ইসির তামাশা: এলডিপি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:৩৪, মার্চ ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০১, মার্চ ২১, ২০২০

এলডিপির বিশেষ বর্ধিত সভায় করোনা পরিস্থিতিতে উপনির্বাচন আয়োজনের নিন্দা।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে জনগণকে ঘরে থাকতে বলে তিনটি সংসদীয় আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের তীব্র নিন্দা জানিয়ে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির একাংশের সভাপতি আব্দুল করিম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম। তারা বলেন, জনগণকে ঘরে রেখে উপনির্বাচন করা নির্বাচন কমিশন (ইসি) জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ও পাগলামি ছাড়া আর কিছুই নয়।

শনিবার (২১ মার্চ) বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন তারা।

তারা আরও বলেন, ইসির এই সিদ্ধান্তে প্রমাণিত হয় তারা জনবিরোধী। তাদের আচরণ এই জনগণের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়িয়ে দিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে বলে উল্লেখ করে এই দুই নেতা বলেন,  অসংখ্য মানুষ আক্রান্ত ও অসংখ্য মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন। সরকারের স্বীকৃতি অনুযায়ী, বাংলাদেশে দুইজন মারা গেছে। যেখানে সরকার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বড় ধরনের লোক সমাগম এড়িয়ে চলা, সভা-সমাবেশ বন্ধের নির্দেশ দিয়ে জনগণকে ঘরে থাকতে বলেছে, সেখানে তিনটি সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন করা ইসি'র জনগণের সঙ্গে তামাশা।

এলডিপি নেতৃদ্বয় বলেন, জনগণের অবস্থার কথা বিবেচনা না করে ২১ তারিখে নির্বাচন করে এই নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বে থাকার সব নৈতিক অধিকার হারিয়েছে। তাদের এই একপেশে সিদ্ধান্ত জনগণের সঙ্গে সম্পর্ক বিবর্জিত, দুর্যোগের সময়ে কমিশন অমানবিক আচরণ করছে।

 

 

/এএইচআর/টিএন/

লাইভ

টপ