করোনা মোকাবিলায় সর্বদলীয় বৈঠক চায় বাম জোট

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৭, মার্চ ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩৭, মার্চ ৩১, ২০২০

বাম গণতান্ত্রিক জোট

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাংলাদেশের জনগণকে রক্ষায় সবার ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার বলে মনে করে বাম গণতান্ত্রিক জোট। এ জন্য সব গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলকে নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠক ডেকে সবার মতামত নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে সরকার তথা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জোটের নেতারা।
সোমবার (৩১ মার্চ) বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের নেতারা এক ভিডিও কনফারেন্সে এ আহ্বান জানান।
বিবৃতিতে নেতারা বলেন, বাংলাদেশ আগে গুরুত্ব না দিয়ে ভুল করেছে। এখনও যদি দলীয় অহমিকা বাদ দিয়ে সবাইকে যুক্ত করে এই মহামারি মোকাবিলায় উদ্যোগ না নেওয়া হয় তাহলে জাতিকে কঠিন খেসারত দিতে হবে। এর দায় সরকারকেই বহন করতে হবে।
বাম নেতারা বলেন, সব মত-পথের চিকিৎসক, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, বিজ্ঞানী, গবেষক ও ভাইরোলজি বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে জাতীয় টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করে পরীক্ষা, চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য বাজেট পুনর্বিন্যাস করে প্রয়োজনে এডিপি কাটছাঁট করে করোনা চিকিৎসা, দরিদ্র জনগোষ্ঠীর খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ করতে হবে।
রাজেকুজ্জামান রতন বিবৃতিতে বলেন, শুরু থেকেই সরকার এ মহামারিকে গুরুত্ব না দেওয়ার কারণেই গত ৩ মাসেও একটি মাত্র প্রতিষ্ঠানে করোনা পরীক্ষা করছে। সেখানকার মুখপাত্র আক্রান্ত ও মৃতের যে পরিসংখ্যান দিচ্ছে তা থেকে স্পষ্ট হয়ে গেছে যে সরকার প্রস্তুতি নেয়নি। দেশবাসী সরকারি ভাষ্য একদমই বিশ্বাস করছে না।

চিকিৎসক ও চিকিৎসাসেবীদের সুরক্ষা না থাকায় সাধারণ রোগীরা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করেন নেতারা। ডাক্তার, নার্স, চিকিৎসা সেবাকর্মী সকলের সুরক্ষা সামগ্রী এবং ঝুঁকি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে বাম নেতারা আরও বলেন, সব হাসপাতালে করোনা কর্নার নয়, এই ভাইরাসের চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল নির্দিষ্ট করে দিতে হবে। প্রয়োজনে আর্মি স্টেডিয়ামসহ সব জেলা-উপজেলা স্টেডিয়ামে ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের ব্যবস্থা করতে হবে। এজন্য প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দিতে হবে।

বিবৃতিতে বাম জোটের নেতারা বলেন, সরকার কিছু ত্রাণ বিতরণের কথা বলছে যা খুবই অপ্রতুল। আমলা-প্রশাসন ও দলীয় লোকদের মাধ্যমে এসব সহায়তা বিতরণের ফলে সবাই এই সহায়তা পাচ্ছে না। জেলা-উপজেলা পর্যায়ে এই সহায়তা আরও বাড়ানো এবং সর্বদলীয় কমিটির মাধ্যমে বিতরণ করতে হবে যাতে সবাই খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা পায়।

ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য দেন জোটের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকী, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা মানস নন্দী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির শহিদুল ইসলাম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক প্রমুখ।

/এএইচআর/এমআর/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ