‘ত্যাগের উৎসবে’ করোনা ও বন্যায় বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান রাজনীতিকদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:৩০, আগস্ট ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০১, আগস্ট ০১, ২০২০

পবিত্র ঈদুল আজহা তথা ত্যাগের উৎসবে কোরবানির মর্মবাণী ধারণ করে সহনশীলতার সঙ্গে করোনা মহামারি ও বন্যায় বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়াতে সক্ষমদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ দেশের কয়েকটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষনেতারা। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) ও শুক্রবার (৩১ জুলাই) ঈদুল আজহা উপলক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে নেতারা অসহায়-নিরন্ন মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার জোর আহ্বান জানান।
শুক্রবার পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দেওয়া বিশেষ বাণীতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র ঈদুল আজহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে সবাইকে বৈষম্যহীন, সুখী, সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আসুন, আমরা সকলে পবিত্র ঈদুল আজহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জনকল্যাণমুখী কাজে অংশ নিয়ে বৈষম্যহীন, সুখী, সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়ে তুলি।
রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা বাসসের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মুসলিম জনগোষ্ঠীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা এবং ঈদ মোবারক জানান । তিনি বলেন, ‘এবার আমরা এক সংকটময় সময়ে ঈদুল আজহা উদযাপন করছি। করোনাভাইরাস সমগ্র বিশ্বকে স্থবির করে দিয়েছে। আমাদের সরকার এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে। আমরা জনগণকে সকল সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছি।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আল্লাহ বিপদে মানুষের ধৈর্য পরীক্ষা করেন। এসময় সকলকে অসীম ধৈর্য নিয়ে সহনশীল ও সহানুভূতিশীল মনে একে অপরকে সাহায্য করে যেতে হবে। এই বিপদের সময় আমাদের স্বাস্থ্যকর্মী, ডাক্তার, নার্স, পুলিশ, প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী, ব্যাংকার ও পরিচ্ছন্নতা কর্মীসহ যারা জীবন বাজি রেখে মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ প্রধানমন্ত্রী এই মহামারিতে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি করার অনুরোধ জানান। ঘরে থেকে পরিবারের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে সবার প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
কোরবানির ঈদ উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। শুভেচ্ছা বার্তায় মন্ত্রী বলেন, ‘জনগণকে সঙ্গে নিয়ে শেখ হাসিনার সরকার অত্যন্ত সাহসিকতা ও বিচক্ষণতার সঙ্গে করোনা ও বন্যা মোকাবিলা করছে। পবিত্র ঈদুল আজহার ত্যাগের শিক্ষায় উজ্জীবিত হয়ে সকলের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নেওয়ার মধ্যেই ঈদের সার্থকতা নিহিত বলে উল্লেখ করেন ড. হাছান।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে বিশেষ বাণী দিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বাণীতে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মুসলমানকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানাই। তাদের অব্যাহত সুখ, শান্তি সমৃদ্ধি কামনা করি।’
বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে ব্রতী হওয়াই কোরবানির মর্মবাণী। পশু কোরবানির পাশাপাশি মনের পশু কোরবানি দিয়ে জীবন-যাপনে স্রষ্টার সন্তুষ্টি অর্জনে ব্রতী হওয়া আমাদের কর্তব্য। দেশ এখন এক চরম দু:সময় অতিবাহিত করছে। করোনা মহামারি ও ভয়াবহ বন্যায় সারাদেশের মানুষ বিপর্যস্ত, অসুস্থতা ও ক্ষুধার জ্বালায় হাহাকার করছে অসহায় মানুষ। তাদের দিন কাটছে জীবন-মৃত্যুর অজানা আশংকায়। এর ওপর স্বেচ্ছাচারী শাসনের কবলে জনগণ অধিকারহীন ও বাকরুদ্ধ।’
স্বার্থচিন্তা পরিহার করে মানব কল্যাণ এবং সমাজে শান্তি, ন্যায়, সুবিচার ও সৌহার্দ্য প্রতিষ্ঠায় আমাদেরকে সচেষ্ট হতে হবে উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, আসুন আমরা অঙ্গীকার করি-এই ‘ত্যাগের উৎসবের’ দিনে করোনা ও বন্যায় বিপন্ন মানুষসহ অসহায়-নিরন্ন মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার।

ঈদুল আযহা উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি।
ঈদ উপলক্ষে দেশবাসী ও বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায়কে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে করোনা ও ভয়াবহ বন্যায় আক্রান্ত, ক্ষতিগ্রস্ত ও সংকটাপন্ন মানুষের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া। তারা বলেন, এমন এক সময় আমাদের মাঝে পবিত্র ঈদ-উল-আজহা উপস্থিত যখন বিশ্বব্যাপী করোনার আঘাতে বাংলাদেশও ক্ষত-বিক্ষত। পাঁচ মাস ধরে করোনার কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত। অর্থনৈতিকভাবে মানুষ চরম দুর্দশাগ্রস্ত। বন্যায় কবলিত দেশের এক তৃতীয়াংশ। কৃষকের ফসল বিনষ্ট হয়ে গেছে। নদী ভাঙনে বহু মানুষের ভূমিহীন, গৃহহীন হয়ে পড়েছে। মানুষ ঈদ আনন্দ ভোগ করা থেকে বঞ্চিত।’
ঈদ উপলক্ষে দেওয়া শুভেচ্ছা বাণীতে খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব অধ্যাপক আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, ‘পারস্পরিক সহযোগিতা, সহমর্মিতা ও মহান আল্লাহর সাহায্যের মাধ্যমে বিশ্ববাসী চলমান করেনা দুর্যোগ, বিশেষ করে বাংলাদেশের মানুষ করোনা ও বন্যার মহাদুর্যোগ উত্তরণে সক্ষম হব।’
ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল পবিত্র ঈদুল আজহার শিক্ষায় দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি সভাপতি আবদুল করিম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম ।

/এসটিএস/এমআর/

লাইভ

টপ