X
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২
২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

যুগপৎ আন্দোলন চান বাম নেতারা

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০২ অক্টোবর ২০২২, ২১:০৩আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ২২:৪৮

বর্তমান সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করতে যুগপৎ আন্দোলনের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন বাম রাজনৈতিক নেতারা। রবিবার (২ অক্টোবর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র গঠন, কৃষক শ্রমিকদের জীবনযাত্রার মান ও সমসাময়িক রাজনীতি’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তারা এ কথা বলেন। গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য এই বৈঠকের আয়োজন করে।

গোলটেবিল বৈঠকে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক বলেন, ‘করোনার কারণে প্রায় চার কোটি মানুষ গরিবের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে মানুষের জীবনযাত্রার মান কমেছে। তাই আজ লাখ লাখ মানুষ মাঠে নামছে। কারণ, মানুষ এই সরকারকে আর দেখতে চায় না। এই সরকারকে নির্বাচনের আগে পদত্যাগে বাধ্য করতে যুগপৎ আন্দোলনের বিকল্প নেই।’

বাসদের সহ-সাধারণ সম্পাদক রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, ‘বর্তমান সরকার মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়ে ক্ষমতায় বসে আছে। নির্বাচন যে কমিশনের অধীনে হবে তারা নিরপেক্ষ না হলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে না।’

বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড হারুন চৌধুরী বলেন, ‘গণমানুষের অধিকার আদায় করার জন্য আরেকটি মুক্তিযুদ্ধ প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। ২০১৪ সাল থেকে স্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে।’

সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সামছুল আলম বলেন, ‘কলঙ্কিত অধ্যায় তৈরি করার জন্য আমাদের পূর্বসূরিরা দেশ স্বাধীন করেনি। সব স্তরের শ্রমিকরা ২০ হাজার টাকা মজুরির জন্য আন্দোলন করছে। ডলারের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে, কিন্তু শ্রমিকের মজুরি বাড়েনি। রাষ্ট্র চালাতে না পারলে ক্ষমতা ছেড়ে দিন।’

গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন কৃষক শ্রমিক পার্টি (কেএসপি)-এর সভাপতি সিরাজুল হক, বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড বিধান দাস, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের মহাসচিব হারুন আল রশিদ খান প্রমুখ।

/জেডএ/এফএস/এমওএফ/
প্রণোদনা সত্ত্বেও রেমিট্যান্স বাড়ছে না: সংসদীয় কমিটি
প্রণোদনা সত্ত্বেও রেমিট্যান্স বাড়ছে না: সংসদীয় কমিটি
নয়াপল্টনে একা মির্জা ফখরুল
কাল সংবাদ সম্মেলননয়াপল্টনে একা মির্জা ফখরুল
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের চেকপোস্ট, ঢাকামুখী গাড়িতে তল্লাশি
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের চেকপোস্ট, ঢাকামুখী গাড়িতে তল্লাশি
২০৩০ সালে চামড়াজাত পণ্যের রফতানি হবে ১০ বিলিয়ন ডলার
২০৩০ সালে চামড়াজাত পণ্যের রফতানি হবে ১০ বিলিয়ন ডলার
সর্বাধিক পঠিত
রোনালদোর পরিবর্তে দলে জায়গা পেয়ে হ্যাটট্রিক গোঞ্জালো রামোসের
রোনালদোর পরিবর্তে দলে জায়গা পেয়ে হ্যাটট্রিক গোঞ্জালো রামোসের
বল ওনাদের কোর্টে, কী সমঝোতা বলবেন তারাই: মির্জা ফখরুল
নয়া পল্টনে গণসমাবেশের অনুমতি পাচ্ছে বিএনপি?বল ওনাদের কোর্টে, কী সমঝোতা বলবেন তারাই: মির্জা ফখরুল
প্রথম একাদশ থেকে বাদ, বেঞ্চে রোনালদো
প্রথম একাদশ থেকে বাদ, বেঞ্চে রোনালদো
কলার বাগান থেকে উদ্ধার ২ লাশের পরিচয় মিলেছে, যা বলছে পরিবার
কলার বাগান থেকে উদ্ধার ২ লাশের পরিচয় মিলেছে, যা বলছে পরিবার
নিষেধাজ্ঞার জাল ভেদ করে কাতার কাঁপানো মিস ক্রোয়েশিয়া!
নিষেধাজ্ঞার জাল ভেদ করে কাতার কাঁপানো মিস ক্রোয়েশিয়া!