মোহামেডানকে ৩ গোল দিলো আবাহনী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫১, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৮, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯

সানডে চিজোবার গোলেই এগিয়ে যায় আবাহনীবৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী হয়নি আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচ। সূচি পাল্টিয়ে আজ (বৃহস্পতিবার) মাঠে গড়ানো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের লড়াইটা হলো একপেশে। যেখানে আবাহনীর দাপটের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে মোহামেডান। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে মোহামেডানকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে আবাহনী।

এই জয়ে আকাশি-নীল জার্সিধারিরা ৯ ম্যাচে সপ্তম জয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে উঠে এসেছে শীর্ষে। বসুন্ধরা কিংস দুই ম্যাচ কম খেলে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। আর মোহামেডান ৮ ম্যাচে আগের ৫ পয়েন্টে নিয়ে দশম স্থানে।

আগের ম্যাচে শেখ রাসেলের কাছে হেরে হতাশায় মাঠ ছাড়তে হয়েছিল আবাহনীকে। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো লড়াইয়ে নিজেদের সেরাটা নিয়ে হাজির হয়েছিল তারা। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আক্রমণাত্মক ফুটবলে প্রথমার্ধেই ১-০ গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী।

ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো আকাশি-নীলরা। হাইতির ফরোয়ার্ড কেরভেন্স বেলফোর্টের ক্রসে ফরোয়ার্ড রুবেল মিয়া বক্সের ভেতরে বল পেয়েও পা ছোঁয়াতে পারেননি। পরের দুটি আক্রমণ থেকে মোহামেডান নিজেদের প্রমাণের চেষ্টা করে। কিন্তু তাদের দুর্ভাগ্য, কোনও গোল পাওয়া হয়নি।

দশম মিনিটে মিডফিল্ডার হাবিুবর রহমান সোহাগের কর্নারে ফরোয়ার্ড তকলিছ আহমেদের হেড গোলরক্ষক শহীদুল আলম সোহেল ঝাঁপিয়ে রুখে দেন। আর ২২ মিনিটে গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার ল্যান্ডিং ডারবোর হেড বারের ওপর দিয়ে গেলে সাদা-কালো জার্সিধারীদের হতাশ হতে হয়।

৩৭তম মিনিটে এসে এগিয়ে যায় আবাহনী। আগের ম্যাচের হারের হতাশা কাটাতে লিড এনে দেন সানডে চিজোবা। ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবনের শট সাইড বারের নিচে লেগে ফিরে আসে, ফিরতি বলে পা লাগিয়ে সহজেই লক্ষভেদ করেন সানডে।

১ গোলে এগিয়ে আক্রমণের ধারা সচল রাখে আবাহনী। এগিয়ে থেকে বিরতিতে যাওয়া আবাহনীর দ্বিতীয় গোলটি এসেছে ৫৭ মিনিটে। দক্ষিণ কোরিয়ার মিডফিল্ডার মিনহিয়োক কো বক্সের ভেতর থেকে ডান পায়ের জোরালো শটে করেন লক্ষ্যভেদ। ৬৪ মিনিটে মোহামেডান ভালো সুযোগ তৈরি করলেও ব্যবধান কমাতে পারেনি।

মিনিট তিনেক পর আবাহনীর জয় নিশ্চিত করেন বেলফোর্ট। রুবেল মিয়ার ক্রসে হাইতির এই ফরোয়ার্ডের হেড জালে জড়িয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মারিও লেমসের দল।

আবাহনীর জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা সানডে চিজোবা বেশ খুশি, ‘ম্যাচ জিততে ভাগ্যও লাগে। আগের ম্যাচে ভালো খেলেও শেখ রাসেলের কাছে হারতে হয়েছে। আজ (বৃহস্পতিবার) মোহামেডানের বিপক্ষে ভালো খেলেছে দল, গোলও পেয়েছে। এই অর্জন সবার।’

মোহামেডানের সহকারী কোচ শহীদুল ইসলাম জুয়েল স্বভাবতই হতাশ, ‘আমার নির্দেশনা অনুযায়ী দল সেভাবে খেলতে পারেনি, বাজে খেলেছে। যদি ঠিকমতো খেলতে পারতো, তাহলে হয়তো ন্যুনতম পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারতাম।’

/টিএ/কেআর/

লাইভ

টপ