বড়ই আনন্দের এক জয়

Send
গাজী আশরাফ হোসেন লিপু
প্রকাশিত : ১১:১৯, নভেম্বর ০৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৯, নভেম্বর ০৪, ২০১৯

গাজী আশরাফ হোসেন লিপুগত দুই সপ্তাহ জুড়ে ক্রিকেট অঙ্গন ছিল বড়ই অস্থির। ক্রিকেট খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের মুখোমুখি অবস্থান। পরে সাকিবের ওপর আরোপিত আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় ভারতে আমাদের এই সফর নিয়ে আমার মনেও একটা সংশয় ছিল যে দল কতটা উজাড় করে দিয়ে মাঠে খেলতে পারবে। শেষ বেলায় তামিম নিজের নাম পুরো সিরিজ থেকে সরিয়ে নেওয়ায় অনেক আশাহত হয়েছিলাম। এই সফরে অদ্য কোন ম্যাচ জয় পাবো বলে মোটেই দলের ওপর পুরোপুরি আস্থা রাখতে পারছিলাম না। এটা স্বীকার করতে দ্বিধা নেই।

অনেক জয়ের আনন্দের চেয়েও আজ আমি আনন্দিত। সাকিব, তামিম, সাইফউদ্দিনদের অনুপস্থিতিতে নিজেদের দায়িত্ব পালনের পরিধি বাড়িয়ে প্রতিটি খেলোয়াড় মাঠে যে নৈপুণ্য দেখালো। সারাক্ষণ চেপে ধরলো ভারতকে এবং সবশেষ ৭ উইকেটের এক বিশাল জয় উপহার দিলো দেশবাসীকে। দলের সবাইকে আমার অনেক অনেক অভিনন্দন এবং তাদের আন্দোলনের স্মৃতি মন থেকে মুছে মাঠে তারা যে উদ্যোমে লড়াই করেছে সেই স্পিরিটকে আমি স্বাগত জানাই।

আজকে দলের নির্বাচনে বেশ চমক ছিল। ছিল তারুণ্যের প্রতি দারুণ আস্থা, সেই আস্থার চমৎকার প্রতিদান ব্যাট হাতে দিল মো. নাঈম শেখ এবং বল হাতে আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও আফিফ। দলকে অনেক দিন পর জেনুইন ৩ পেস বোলার নিয়ে খেলতে দেখে ভালো লেগেছে, আল আমিন তার ফেরত আসাটা দারুণভাবে উদযাপন করেছেন এবং নিশ্চয়ই উপভোগ করেছেন তার প্রথম ৩ ওভারে ১১ রানের সময়টুকু।  

অনেক দিন পর সৌম্যকে রান করতে দেখে ভালো লাগলো। যেহেতু সাকিব ১ বছর খেলবেন না, তাই এই সময়েও ৩ নম্বরে ব্যাট করে জায়গাটা সাময়িকভাবে পাকা করার বড় সুযোগটা তিনি কাজে লাগাতে পারেন। আজ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্ব ছিল প্রশংসনীয়। বিশেষ করে মন্থর পিচে ভারতের এক রান আটকানোর কৌশল লক্ষ্যণীয় ছিল এবং ফিল্ড প্লেসিং ছিল বেশ নিখুঁত।

১৪৮ রান এই মন্থর পিচে তাড়া করাটাও বেশ চ্যালেঞ্জ ছিল। তবে ভারতের বোলাররা আমাদের ওপরের সারির উইকেট তুলে চাপে ফেলতে না পারায় শেষ পর্যন্ত ওভার প্রতি ১০ রান তাড়া করতেও অসুবিধা হয়নি। সৌম্যর যোগ্য সমর্থনে মুশফিক খেলেন তার জীবনের অন্যতম সফল একটি ম্যাচ উইনিং ইনিংস। এই ম্যাচটির ব্যাটিং ও ফিনিশিংয়ের পর্বটির সঙ্গে আপনি যে কোন বড় দলের নৈপুণ্য ও কুশলতার তুলনা করতে পারেন। যা আমি দারুণ উপভোগ করেছি।

দিল্লির এই তীব্র বায়ুদূষণের সঙ্গে মানিয়ে দল জয়ী হয়েছে এবং সকলকে সুস্থ দেখে ভালো লেগেছে। আরও ভালো লেগেছে খেলা শেষে আমাদের দল এই সিরিজ জয়ের একটা চাপ নিয়ে নিজেদের কীভাবে প্রস্তুত করে তা ৭ তারিখ দেখার অপেক্ষায় রইলাম।

 

/এফআইআর/

লাইভ

টপ