কী অপেক্ষা করছে ইন্দোরের সবুজ উইকেটে?

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:১৮, নভেম্বর ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৮, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

গভীর মনোযোগে ইন্দোরের উইকেট দেখছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক ও কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোইন্দোরের উইকেট যেন সবুজ গালিচা! ম্যাচের আগের দিন মাঠ ও উইকেট আলাদা করাই কঠিন। বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক অনেকক্ষণ উইকেটের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে চোখ বুলিয়ে গেলেন। মাঠে নামার আগেই তার অধিনায়কত্বের পরীক্ষা শুরু হয়ে গেছে পিচ দেখার পর। ইন্দোর টেস্টের একাদশ ঠিক করবেন তো এই পিচের ওপর নির্ভর করেই।

উপমহাদেশের উইকেট সচরাচর হয় স্পিন নির্ভর। ম্যাচ শুরুর একদিন আগে ইন্দোরের হলকার ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পিচ দেখলে সেই ধারণা পাল্টে যাবে। পেসারদের স্বর্গই সম্ভবত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-ভারতের প্রথম টেস্ট। বৃহস্পতিবার শুরু হতে যাওয়া এই ম্যাচ দিয়েই বাংলাদেশ প্রবেশ করতে যাচ্ছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ যুগে। বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় শুরু হবে খেলা, সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টেলিভিশন ও চ্যানেল নাইন।

টেস্ট স্ট্যাটাস প্রাপ্তির ১৯ বছরের মাথায় এই প্রথম ভারতের মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ। রোমাঞ্চের সঙ্গে কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে টাইগারদের জন্য। গত কয়েক বছরে ভারত নিজের মাটিতে কতটা শক্তিশালী, সেটা পরিসংখ্যানে চোখ বুলালেই বোঝা যায়। নিজেদের মাঠে টানা ১২ টেস্টে হারের মুখ দেখেনি ভারত। এ সময়ে ড্র করেছে মাত্র তিনটি, বাকি ৯ টেস্টে বিজয়ীর বেশে মাঠ ছেড়েছে তারা।

এর আগের রেকর্ডটাও ঈর্ষণীয়। ২০১২ সালের ১৩ ডিসেম্বর থেকে ২০১৭ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ভারত সাদা পোশাকে দেশের মাটিতে কোনও টেস্ট হারেনি। ২০ টেস্টে ড্র মাত্র তিনটিতে, বাকি ১৭ টেস্টে শেষ হাসি হেসেছে ভারত। সবশেষ দক্ষিণ আফ্রিকাকে আক্ষরিক অর্থেই উড়িয়ে দিয়েছে তারা। প্রোটিয়াদের ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শীর্ষস্থান আরও সুসংহত করেছে ভারত।

এ তো গেল দেশের মাটিতে তাদের পরিসংখ্যান। বাংলাদেশের বিপক্ষে মুখোমুখি লড়াইয়েও বিরাট কোহলিরা যোজন যোজন ব্যবধানে এগিয়ে। ৯ টেস্টে বৃষ্টির আশীর্বাদে দুটি ম্যাচ ড্র করা গেলেও দীর্ঘ পথচলায় জয়ের মঞ্চ কখনোই তৈরি করতে পারেনি বাংলাদেশ। হায়দরাবাদে দুই দলের সবশেষ টেস্ট হয়েছে ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে। একমাত্র ওই টেস্টটি ভারত জিতেছিল ২০৮ রানে। অতীত এই ইতিহাস পাল্টাতেই ইন্দোর টেস্টে বাংলাদেশ নামছে নতুন অধিনায়ক মুমিনুলের নেতৃত্বে।

বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান অধিনায়কত্ব পেয়েছেন আচমকা। জুয়াড়ির সঙ্গে যোগাযোগের কথা ‘গোপন’ করায় আইসিসি সাকিব আল হাসানকে নিষিদ্ধ করায় তাকে অধিনায়ক করে টেস্ট দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তামিম ইকবাল নেই আবার ব্যক্তিগত কারণে। সেই দিক থেকে শেষবার ভারত সফরের চেয়ে এবারের চ্যালেঞ্জ আরও কঠিন।

অধিনায়ক মুমিনুলও সংবাদ সম্মেলনে সেটাই জানিয়ে গেছেন, ‘সাকিব-তামিম নেই। তাদের অভাব পূরণ করতে আমাদের বাড়তি দায়িত্ব পালন করতে হবে। আশা করি, সবাই নিজেদের দায়িত্বের ব্যাপারে অবগত আছে। ভারত কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও দলগত পারফরম্যান্স দিয়ে আমাদের সফল হতে হবে।’

ইন্দোর টেস্টের আগের দিন ২২ গজে ঘাস দেখা গেছে। তাই তিন পেসার নিয়েই হতে পারে একাদশ। ভারতের একাদশে তিন পেসার খেলানোর ইঙ্গিত মিলেছে অধিনায়ক বিরাট কোহলির কথায়, ‘পিচ দেখার পর মনে হচ্ছে এটাই (তিন পেসার) হয়তো সম্ভাব্য। দেখা যাক ম্যাচের দিন উইকেটের অবস্থা কেমন দাঁড়ায়।’

সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল অবশ্য একাদশ নিয়ে তেমন কিছু বলেননি। সকালে উইকেট দেখেই একাদশ সাজানোর কথা বলেছেন তিনি। তবে টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে জানা গেছে, উইকেটে ঘাস থাকলে তিন পেসার নিয়েই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সেক্ষেত্রে মোস্তাফিজুর রহমান, আবু জায়েদ রাহীর সঙ্গে দীর্ঘদিন পর টেস্টে ফিরবেন আল আমিন হোসেন।

পুরো শক্তির ভারতের সামনে সাকিব-তামিমবিহীন বাংলাদেশের কঠিন চ্যালেঞ্জ। মুমিনুল অবশ্য চাপ নিচ্ছেন না, ‘আমাদের কোনও চাপ নেই। প্রত্যাশাও খুব বেশি নয়। সেরকম কোনও চাপ নেই যে, জিততেই হবে। চেষ্টা থাকবে ভালো ক্রিকেট খেলা। চাওয়া থাকবে- ভারত সফরে যারা সুযোগ পেয়েছি, তারা যেন নিজেদের সেরাটা দিতে পারি।’

/আরআই/কেআর/

লাইভ

টপ