শুরুতেই দুই ওপেনারকে হারালো বাংলাদেশ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১০:৪০, নভেম্বর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৮, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

ইন্দোর টেস্টে ভারত ৬ উইকেটে ৪৯৩ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করায় ৩৪৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছে বাংলাদেশ। স্কোর ২ উইকেটে ৩৩।

ঠিক যেন প্রথম ইনিংসের পুনরাবৃত্তি। ভুল থেকে একেবারেই শিক্ষা নেননি বাংলাদেশের দুই ওপেনার ইমরুল কায়েস ও সাদমান ইসলাম। আবারও দলকে বিপদে ফেলে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তারা।

ইমরুলের পর আউট হয়ে গেছেন সাদমান। মাত্র ১৬ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়েছে সফরকারীরা। প্রথম ইনিংসে ইশান্ত শর্মার বলে প্যাভিলিয়নে ফেরা সাদমান দ্বিতীয় ইনিংসেও এই পেসারের শিকার। এবার বোল্ড হয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার। ইশান্তের ইন সুইং বল সরাসরি আঘাত করে স্টাম্পে। প্রথম ইনিংসের মতো এবারও তার রান ৬।   

আবারও ব্যর্থ ইমরুল

প্রথম ইনিংসে আউট হয়েছিলেন তিনি উমেশ যাদবের বলে। দ্বিতীয় ইনিংসেও ভারতীয় পেসারের শিকার ইমরুল কায়েস। কাকতালীয়ভাবে এবারও আউট ৬ রানে।

দ্বিতীয় ইনিংসে পুষিয়ে দেওয়ার সুযোগ ছিল ইমরুলের। তা তো পারলেনই না, উল্টো দলকে আবারও বিপদের মধ্যে ছেড়ে গেছেন। তার বিদায়ে দলীয় ১০ রানে প্রথম উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ। উমেশের বলে বোল্ড হয়েছেন ফিরেছেন এই ওপেনার।

তৃতীয় দিনের শুরুতেই ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

ইনিংস ঘোষণা করেছে ভারত। তৃতীয় দিনে আর ব্যাটিংয়ে নামেনি স্বাগতিকরা। নতুন দিনের শুরুতেই তাই দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছে টাইগাররা।

ইন্দোর টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ৬ উইকেটে ৪৯৩ রানে শেষ করা ভারত ওই স্কোরেই ঘোষণা করেছে তাদের প্রথম ইনিংস। বাংলাদেশের চেয়ে ৩৪৩ রানে এগিয়ে থেকে বোলিংয়ে নেমেছে বিরাট কোহলিরা।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ও ভারতের পার্থক্য একাই গড়ে দিয়েছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। এই ওপেনার ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করে খেলেছেন ২৪৩ রানের ইনিংস। যেখানে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট হয়েছিল মাত্র ১৫০ রানে।

বাংলাদেশের বোলারদের ভুগিয়েছেন আজিঙ্কা রাহানে, রবীন্দ্র জাদেজা ও চেতেশ্বর পূজারাও। তিনজনই পূরণ করেছেন হাফসেঞ্চুরি। রাহানে খেলেন ৮০ রানের ইনিংস, আর পূজারা করেন ৫৪ রান। অন্যদিকে জাদেজা ৬০ রানে অপরাজিত থেকে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিলেন। তার সঙ্গে ১০ বলে ঝড়ো ২৫ রানের ইনিংস খেলে ফিরেছিলেন উমেশ যাদব।

বাংলাদেশি বোলারদের হতাশার প্রথম ইনিংসে সফল কেবল আবু জায়েদ রাহী। ভারতের হারানো ৬ উইকেটের ৪টিই তার দখলে। আর একটি করে উইকেট পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও এবাদত হোসেন।

/কেআর/

লাইভ

টপ