জাতীয় লিগে রেকর্ড চ্যাম্পিয়ন খুলনা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:১৭, নভেম্বর ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২০, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

খুলনার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আনন্দতৃতীয় দিনেই জয়ের সুবাস পাচ্ছিলো খুলনা। মঙ্গলবার চতুর্থ দিনে পেলো পূর্ণতা। জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে আব্দুর রাজ্জাক-নুরুল হাসানরা। একই সঙ্গে ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার রেকর্ডও নতুন করে লিখেছে খুলনা।

আজ (মঙ্গলবার) শেষ রাউন্ডের শেষ দিনে ঢাকা বিভাগকে ৯ উইকেটে হারিয়ে এনসিএলের সপ্তম শিরোপা জিতেছে খুলনা। ২০১৫-১৬ মৌসুম থেকে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হওয়া খুলনা গত আসরে সিংহাসন হারায় রাজশাহীর কাছে। ষষ্ঠবার চ্যাম্পিয়ন হয়ে রাজশাহী শিরোপা সংখ্যায় ধরে ফেলে তাদের। এবারের মৌসুমে ‍শিরোপা পুনরুদ্ধার করে চ্যাম্পিয়নের নতুন রেকর্ড গড়েছে খুলনা।

গতবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহীকে দেখতে হয়েছে মুদ্রার উল্টো পিঠ। চ্যাম্পিয়ন থেকে সরাসরি দ্বিতীয় স্তরে নেমে যেতে হয়েছে তাদের। রংপুরের বিপক্ষে ১৫৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে রাজশাহী। অন্যদিকে প্রথম স্তরে জায়গা করে নিয়েছে দ্বিতীয় স্তরের চ্যাম্পিয়ন সিলেট।

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে শিরোপা উদযাপন করেছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় ইনিংসে ঢাকা ২১৬ রানে গুটিয়ে গেলে খুলনার লক্ষ্য ঠিক হয় ১১৭ রানের। সহজ এই লক্ষ্য এনামুল হকের হাফসেঞ্চুরিতে মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে টপকে যায় খুলনা। এনামুল ৭৬ বলে ৪ বাউন্ডারি ও সমান ছক্কায় খেলেন হার না মানা ৭৯ রানের ইনিংস। তার সঙ্গে শিরোপা নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন ৩৩ রানে অপরাজিত থাকা অমিত মজুমদার।

এর আগে খুলনার শিরোপা জয়ের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন ঢাকার রকিবুল হাসান। ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে মাত্র ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাননি এই ব্যাটসম্যান। ২২৭ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ৩ ছক্কায় করেন ৯৯ রান। তার সঙ্গে প্রতিরোধ গড়েছিলেন মোহাম্মদ আরাফাত, ১৪৮ বলে তিনি করেন ৫৩ রান। ঢাকার এই দুই ব্যাটসম্যানকে আউট করার পর জয় পেতে বেগ পেতে হয়নি খুলনাকে।

তাদের আনন্দের দিনে হতাশায় মেঘে ঢাকা পড়েছে রাজশাহী। গতবারের ‍চ্যাম্পিয়নরা নেমে গেছে দ্বিতীয় স্তরে। ঘরের মাঠ শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং বিপর্যয় ডুবিয়েছে তাদের। রংপুর ৬ উইকেটে ২২৮ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করলে রাজশাহীর লক্ষ্য ঠিক হয় ২৪৯ রানের। রংপুরের তিনি বোলার আরিফুল হক (৩/২০), আলাউদ্দিন বাবু (৩/৪২) ও সাজেদুল ইসলামের (২/২১) সামনে মাত্র ৯৩ রানে গুটিয়ে যায় তারা।

দ্বিতীয় ইনিংসে রাজশাহীর ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৩৪ রান এসেছে জুনায়েদ সিদ্দিকীর ব্যাট থেকে। ২৭ রান করেছেন টেল এন্ডার সুজন হাওলাদার।

এদিকে দ্বিতীয় স্তরে ঢাকা মেট্রো-বরিশাল বিভাগের ম্যাচটি ড্র হয়েছে। বরিশাল প্রথম ইনিংসে ৪১৪ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিল ২৬৯। আর প্রথম ইনিংসে ৪৬৬ রান করা ঢাকা মেট্রো দ্বিতীয় ইনিংসে ১ উইকেটে ১৯ রান করলে ড্রতে শেষ হয় বরিশাল বিভাগীয় স্টেডিয়ামের ম্যাচটি।

/কেআর/

লাইভ

টপ