দিবা-রাত্রির টেস্টের উদ্বোধনী দিনে যা থাকছে

Send
রবিউল ইসলাম, কলকাতা থেকে
প্রকাশিত : ২২:১৯, নভেম্বর ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৭, নভেম্বর ২১, ২০১৯

নানা উদ্যোগ নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ভেন্যু ইডেন গার্ডেনসে শুক্রবার শুরু হচ্ছে বহুল ঐতিহাসিক গোলাপি বলের টেস্ট।  বাংলাদেশ ও ভারত দুই দলই প্রথমবার খেলতে যাচ্ছে এই টেস্ট। তাই অনেক রথী-মহারথীদের মিলনমেলা বসতে যাচ্ছে কলকাতায়। গোলাপি বলের এই ম্যাচ আয়োজন নিয়ে এখন পুরোপুরি বুঁদ পশ্চিমবঙ্গ ক্রিকেট এসোসিয়েশন (সিএবি)।শুক্রবার উদ্বোধনী দিনে নানা কর্মযজ্ঞ ঘোষণা করেছে  সিএবি।

টস হওয়ার আগে কলকাতা পুলিশ ব্যান্ড শো প্রদর্শন করবে। এরপর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খেলোয়াড়দের সঙ্গে মাঠে পরিচিত হবেন। ঠিক বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায় বিশেষ সোনার কয়েনে টস অনুষ্ঠিত হবে।

টস শেষে দুই পাশে দাঁড়িয়ে খেলোয়াড়রা জাতীয় সঙ্গীত গাইবে। তবে এবার রেকর্ড বাজিয়ে হবে না। অর্কেস্ট্রার বাজনাতে দুই দলের সঙ্গীত বেজে উঠবে। বৃহস্পতিবার রাতে তারই রিহার্সাল হলো ইডেনের সবুজ গালিচায়।

এরপরই ইডেনের বিখ্যাত ঘণ্টা বাজিয়ে ঐতিহাসিক গোলাপি বলের টেস্টের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পাশে থাকবেন বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এবং শচীন টেন্ডুলকার।

বাংলাদেশ সময় ঠিক দুপুর দেড়টায় শুরু হবে আলোচিত গোলাপি বলের ম্যাচটি। এরপর লাঞ্চ বিরতিতে আরও বড় চমক অপেক্ষা করছে ক্রিকেট ভক্তদের জন্য। লাঞ্চ ব্রেকে শচীন, লক্ষ্মণ, দ্রাবিড়, শেবাগ, সৌরভ মিলে টক শো করবেন। সেখানে ম্যাচের নানা পরিস্থিতি উঠে আসবে।

চা বিরতির পর স্বরেন্দ্রু ও তার গ্রুপের সংগীত পরিবেশনা থাকবে। এরপর ২০০০ সালে অভিষেক টেস্টে অংশ নেওয়া বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে একটি গাড়ি মাঠ প্রদক্ষিণ করবে।তাদের জন্য থাকছে বিশেষ স্যুভেনির।

ম্যাচ শেষে ক্রিকেটারসহ দর্শকদের বিমোহিত করতে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লা ও কলকাতার সংগীত শিল্পী জিৎ গাঙ্গুলী। রুনা লায়লা দুটি বাংলা গান ছাড়াও একটি হিন্দি গান গাইবেন। অন্যদিকে জিৎ গাঙ্গুলীর গান পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে প্রথম দিনের অনুষ্ঠান।

/এফআইআর/

লাইভ

টপ