রাসেলের কাছে গেইলের হার, ফাইনালে রাজশাহী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:০৪, জানুয়ারি ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৪, জানুয়ারি ১৫, ২০২০

আন্দ্রে রাসেল ঝড়ে ফাইনালে রাজশাহীশুরুটা ছিল ক্রিস গেইলের তাণ্ডবে। আর শেষটা হলো আন্দ্রে রাসেলের অতিমানবীয় ইনিংসে। তবে গেইলের বিধ্বংসী ইনিংস ম্লান হয়ে গেছে রাসেল-ঝড়ে। ক্যারিবিয়ান হার্ডহিটারের চোখ ধাঁধানো ইনিংসেই ফাইনালে রাজশাহী রয়্যালস। আজ (বুধবার) বঙ্গবন্ধু বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ২ উইকেটে হারিয়েছে ‍রাসেলের রাজশাহী।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ‍২০ ওভারে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ৯ উইকেটে করা ১৬৪ রান ৮ উইকেট হারিয়ে ৪ বল আগে টপকে যায় রাজশাহী। এই তথ্যে দিয়ে আসলে ঠিক বোঝানো যাবে না মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের ম্যাচের ‍উত্তাপ। একটা সময় রাজশাহীর জয়ের সমীকরণ ছিল ২৪ বলে  ৫৭ রান। পরের ওভারে দাঁড়ায় ১৮ বলে ৩৭। সেটা আরও কঠিন হয়ে ১২ বলে দরকার পড়ে ৩১। কিন্তু ক্রিজে যখন রাসেল, তখন সবই সম্ভব।

অসম্ভবকেই সম্ভব করেছেন রাসেল। ক্যারিবিয়ান তারকা মাত্র ২২ বলে অপরাজিত ৫৪ রানের ইনিংস খেলে ঠিকই জয় এনে দেন রাজশাহীকে। রুবেল হোসেনের পরপর তিন বল ডট দেওয়া কিংবা অন্য প্রান্ত থেকে উইকেট হারানো দেখে মোটেও ভেঙে পড়েননি, বরং নিজের সহজাত ব্যাটিংয়ে মধুময় সমাপ্তি টেনেছেন রাজশাহী অধিনায়ক।

তবে শুরুর দৃশ্যপট ছিল একেবারে ভিন্ন। ১৬৫ রানের লক্ষ্যে ৩৪ রানে রাজশাহী হারায় টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন (২), লিটন দাস (৬) ও অলক কাপালিকে (৯)। শোয়েব মালিক (১৪) ও ইরফান শুক্কুর (৪৫) প্রতিরোধ গড়লেও আস্কিং রেট বাড়তে থাকে রাজশাহীর। সেই জায়গা থেকে মোহাম্মদ নওয়াজকে (১৪) সঙ্গী করে রাসেল চলতে থাকলেও পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান ফিরে যান দ্রুত। তবে তিনি থামেননি, ২২ বলে ২ চার ও  ৭ ছক্কায় সাজানো অপরাজিত ৫৪ রানের ইনিংসে পাল্টে দেন পাশার দান।

রাসেলের বিধ্বংসী ইনিংসের আগে বোলিংয়ে দারুণ করে চট্টগ্রাম। ২টি করে উইকেট নেন রুবেল হোসেন ও রায়াদ এমরিট। আর একটি করে উইকেট শিকার জিয়াউর রহমান ও মাহমুদউল্লাহর।

এর আগে মিরপুর দেখেছে গেইলের ব্যাটিং-তাণ্ডব। ক্যারিবিয়ান তারকা ২৪ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ৫ ছক্কায় করেন ৬০ রান। মাহমুদউল্লাহও কম যাননি, ১৮ বলে ৩ চার ও সমান ছয়ে করেন ৩৩ রান। পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে না পারায় একটা সময় ১৫০ রান করাটাই কঠিন মনে হয়েছিল তাদের। তবে আসেলা গুনারাত্নের ২৫ বলে করা ৩১ রানে ১৬৪ রান দাঁড় করায় তারা।

কিন্তু এই স্কোর যথেষ্ট হয়নি। প্রতিপক্ষ দলে যে ছিলেন একজন ‘দ্রে-রাস’, এই মুহূর্তে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে গেইলের চেয়েও যে নামটি বেশি প্রার্থিত। দ্রে-রাসেই ম্যাচ জিতে ফাইনালে রাজশাহী। শুক্রবার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ খুলনা টাইগার্স।

/কেআর/পিকে/

লাইভ

টপ