দ্রুততম মানব হয়েও ইসমাইলের হতাশা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৫৩, জানুয়ারি ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৩, জানুয়ারি ১৬, ২০২০

তারা দ্রুততম মানব-মানবীঢাকায় গতবার জাতীয় অ্যাথলেটিকসে ট্র্যাকে ঝড় তুলেছিলেন মোহাম্মদ ইসমাইল ও শিরিন আক্তার। এবার চট্টগ্রামে ঘাসের ট্র্যাকেও তাদের আধিপত্য। মুজিববর্ষের এই জাতীয় অ্যাথলেটিকসের প্রথম দিনে ১০০ মিটার স্প্রিন্ট জিতেছেন দুজনই, ধরে রেখেছেন দ্রুততম মানব ও মানবীর মুকুট।

দীর্ঘ ১৪ বছর পর বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে জাতীয় অ্যাথলেটিকস। সময় ধরা হচ্ছে হাতঘড়িতে। ১০০ মিটার স্প্রিন্টে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ইসমাইল ১০.৪০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হয়েছেন। গতবার প্রথম হতে সময় নিয়েছিলেন ১০.২৬ সেকেন্ড।

আবারও দ্রুততম মানব হয়ে ইসমাইলের কণ্ঠে অবশ্য উচ্ছ্বাস নেই, বরং হতাশ তিনি, ‘অ্যাথলেটিকস ট্র্যাকে দৌড়াতে পারলে ভালো হতো। ঘাসের মাঠে নিজের আসল পারফরম্যান্সটা বোঝা যায় না। যদি অ্যাথলেটিকস ট্র্যাকে দৌড়াতে পারতাম তাহলে নিজের রেকর্ড এবার ভাঙার সুযোগ হতো।’

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর হাসান মিয়া ১০.৫০ সেকেন্ড সময় নিয়ে দ্বিতীয় ও নৌবাহিনীর এমএ রউফ ১০.৬০ সেকেন্ড সময় নিয়ে তৃতীয় হয়েছেন।

মেয়েদের ১০০ মিটারে ১২.১০ সেকেন্ড সময় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নৌবাহিনীর শিরিন আক্তার। জাতীয় অ্যাথলেটিকসে গত আসরে ১১.৮০ সেকেন্ড নিয়ে সেরা হয়েছিলেন এই অ্যাথলেট। সেনাবাহিনীর শরিফা খাতুন ১২.৩০ সেকেন্ড সময় নিয়ে দ্বিতীয় ও সেনাবাহিনীর সোনিয়া আক্তার ১২.৬০ সেকেন্ড নিয়ে তৃতীয় হন।

মেয়েদের ১৫০০ মিটার দৌড়ে সেনাবাহিনীর সুমি আক্তার ৫ মিনিট ১০.৯০ সেকেন্ড সময় করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। হাইজাম্পে একই দলের জান্নাতুল ১.৬৩ মিটার লাফিয়ে ও শটপুটে আনসার ভিডিপির শ্রাবণী মল্লিক ১১.৮৩ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করে সেরা হয়েছেন।

ছেলেদের শটপুটে নৌবাহিনীর এম ইব্রাহিম চ্যাম্পিয়ন, তার অতিক্রান্ত দূরত্ব ১৪.২৮ মিটার। হাইজাম্পে একই বাহিনীর মাহফুজুর রহমান ২ মিটার লাফিয়ে সবাইকে ছাড়িয়ে যান। ৫০০০ মিটারে সেনাবহিনীর আল আমিন ১৫ মিনিট ৫৩.৭০ সেকেন্ড সময়ে  দৌড় শেষ করে প্রথম হন।

৪ গুনিতক ১০০ মিটার রিলের দুই বিভাগেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নৌবাহিনী।

/টিএ/পিকে/

লাইভ

টপ