গ্রিজমানের জোড়ায় অঘটন এড়ালো বার্সেলোনা

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৯:৪৩, জানুয়ারি ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৩, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

r655757_1296x729_16-9স্পেনের ছোট্ট একটা দ্বীপ দল ইউডি ইবিজা। তাদের সঙ্গে কী বাঁচাই না বেঁচেছে বার্সেলোনা। পিছিয়ে পড়ার পর আন্তোয়ান গ্রিজমানের জোড়া গোলে কোপা দেল রেতে অঘটন এড়ালো কাতালানরা। গতকাল বুধবার ২-১ গোলে জিতে শেষ ষোলোতে ঠাঁই করে নিলো কিকে সেতিয়েনের ফুটবলাররা।

নতুন কোচ তার দ্বিতীয় ম্যাচে বিশ্রাম দেন লিওনেল মেসি, জেরার্দ পিকে ও সের্হিয়ো বুশকেৎসকে। এর প্রভাবই হয়তো পড়েছিল বার্সার পারফরম্যান্সে। মাত্র ১০ মিনিটে পেপ কাবায়ে এগিয়ে দেন স্বাগতিকদের। দ্বিতীয়ার্ধে গ্রিজমানের গোলে সমতা ফেরায় বার্সা। ম্যাচটি অতিরিক্ত সময়ে গড়ানোর আভাস দিলেও ফরাসি ফরোয়ার্ডের যোগ করা সময়ের গোল এনে দেয় স্বস্তির জয়।

প্রথম ৩৫ মিনিটে একটিও শট নিতে পারেনি বার্সা। অন্যদিকে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ নষ্ট করে ইবিজা। বিরতির আগে রাই নাসসিমেন্তোর শট পোস্টে লাগে। ফিরতি শটে আনহেল রোদাদোকে রুখে দেন বার্সা গোলকিপার নেতো।

গ্রিজমান জানান, ৩-৪-৩ ফরমেশনের কারণে শুরুটা ছিল মন্থর, ‘প্রথমার্ধে আমরা একটিও শট নিতে পারিনি। এটা ছিল নতুন ফরমেশন, আমাদের এতে অভ্যস্ত হতে হবে। কোচের ট্যাকটিকস বুঝে আমাদের আরও আক্রমণে যেতে হবে। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা ভালো করেছি। আমাকে গোল করতে পাস দেওয়ায় সতীর্থদের ধন্যবাদ। আমার দুটি সুযোগই আমি লুফে নিয়েছি।’

এক ঘণ্টা পরও ম্যাচে পিছিয়ে থাকায় চাপে ছিল বার্সা। সেতিয়েন কার্লেস পেরেজকে উঠিয়ে মাঠে নামান জোর্দি আলবাকে। শেষ পর্যন্ত বার্সা স্কোর সমান করে ৭২ মিনিটে। ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ংয়ের অ্যাসিস্টে গোল করেন গ্রিজমান। যোগ করা ৬ মিনিটের চতুর্থ মিনিটে আলবার বাড়ানো বলে কাছের পোস্ট থেকে গোল করতে ভুল করেননি ফরাসি ফরোয়ার্ড।

শুধু বার্সাই নয়, রিয়াল মাদ্রিদকেও ঘাম ঝরাতে হয়েছে দ্বিতীয় সারির ক্লাব ইউনিওনিস্তাস দে সালামানকার সঙ্গে। ৩-১ গোলে জিতেছে তারা।

২০ মিনিটের মধ্যে রিয়াল এগিয়ে যায়। ১ সেপ্টেম্বরের পর মাদ্রিদ ক্লাবের জার্সিতে প্রথম গোল করেন গ্যারেথ বেল। ইউনিওনিস্তাসের রক্ষণভাগ বল ঠিকভাবে বিপদমুক্ত করতে না পারার মাশুল দেয় ১৮ মিনিটে। আর কোনও গোলের দেখা না পেলে রিয়াল প্রথমার্ধ শেষ করে ১-০ তে এগিয়ে থেকে।

৫৫ মিনিটে বদলি নামার কিছুক্ষণ পরই চমৎকার গোলে স্বাগতিকদের সমতায় ফেরান আলভারো রোমেরো। মাঝমাঠ থেকে বল ড্রিবল করে বাঁ দিক দিয়ে ঢুকে বাঁকানো শটে আলফোন্স আরেওলাকে পরাস্ত করেন। স্বাগতিক দর্শকদের উচ্ছ্বাস বেশিক্ষণ টেকেনি। রিয়ালের আক্রমণ ঠেকাতে গিয়ে ৬২ মিনিটে আত্মঘাতী গোল করেন হুয়ান গঙ্গোরা।

রিয়াল সহজে আরও কয়েকবার গোল করতে পারতো। প্রতিপক্ষ গোলকিপার ব্রেস পেরেইরো চমৎকার কয়েকটি সেভে তাদের ব্যর্থ করেন। অবশ্য যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে ব্রাহিম দিয়াজ স্কোরটা ঠিকই সাজিয়ে নেন ৩-১ এ।

এ বছরের প্রতিযোগিতা হচ্ছে নতুন আঙ্গিকে। সেমিফাইনালের আগে এক ম্যাচের ফরম্যাটে হবে খেলা।

/এফএইচএম/

লাইভ

টপ
X