সেই ঠিমই এখন ফাইনালে

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০৩, জানুয়ারি ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৩, জানুয়ারি ৩১, ২০২০

ডমিনিক ঠিমের ফাইনালে ওঠার আনন্দস্বপ্নের পথচলায় ফাইনালের চৌকাঠে এসে দাঁড়ালেন ডমিনিক ঠিম। রবিবার রড লেভার অ্যারেনায় এই ধাপ পেরোলেই লিখবেন নতুন ইতিহাস। রাফায়েল নাদালকে বিদায় করে দেওয়া অস্ট্রিয়ান টেনিস তারকা পৌঁছে গেলেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে। যেখানে তিনি মুখোমুখি হবেন মেলবোর্ন পার্কের ‘রাজা’ নোভাক জোকোভিচের।

প্রথম সেট হারলেও দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন ঠিম। আজ (শুক্রবার) সেমিফাইনালে জার্মান প্রতিদ্বন্দ্বী আলেক্সান্ডার জভেরেভকে হারিয়েছেন ৩-৬, ৬-৪, ৭-৬ (৭-৩), ৭-৬ (৭-৪) গেমে। কোয়ার্টার ফাইনালে ফেভারিট নাদালকে বিদায় করার পথেও টাইব্রেকার-জাদু দেখিয়েছিলেন অস্ট্রিয়ান পাঁচ নম্বর বাছাই। চার সেটের লড়াইয়ে তিনটিই জিতেছিলেন টাইব্রেকারে।

সেমিফাইনালেও ঠিম শেষ দুই সেট টাইব্রেকারে জিতে পৌঁছে গেছেন শিরোপা লড়াইয়ের মঞ্চে। সাড়ে তিন ঘণ্টায় সেমিফাইনাল জেতা ২৬ বছর বয়সী অস্ট্রিয়ানের ফাইনালে প্রতিদ্বন্দ্বী জোকোভিচ, যিনি প্রথম সেমিফাইনালে রজার ফেদেরারকে হারিয়ে তৈরি করেছেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের অষ্টম শিরোপা জয়ের পথ।

মেলবোর্ন পার্কের ফাইনালে উঠে কখনও হারেননি জোকোভিচ। বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামের সবচেয়ে বেশি শিরোপার রেকর্ডও তার দখলে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের গত ১০ আসরে মাত্র তিন ম্যাচে হারের দুঃখ আছে সার্বিয়ান তারকার। এমন রেকর্ড যার দখলে, তার বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে ঠিমের বিশ্বাসই হচ্ছে না ফাইনালে পৌঁছে গেছেন, ‘আমার কাছে সব অবাস্তব মনে হচ্ছে।’

ছেলেদের গ্র্যান্ড স্লামে বছরের পর বছর ধরে চলছে ‘বিগ থ্রি’ জোকোভিচ, নাদাল ও ফেদেরারের দাপট। রবিবারের ফাইনাল জিতলে ১৯৯০’র দশকে জন্ম নেওয়া প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড গড়বেন ‍ঠিম। একই সঙ্গে ১৯৯৫ সালে টমাস মুস্টারের ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ের ‍পর প্রথম অস্ট্রিয়ান হিসেবে গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের হাতছানি তার সামনে।

২০১৮ ও ২০১৯ সালের ফ্রেঞ্চ ওপেনেই কিন্তু প্রথম বড় শিরোপা হাতে তুলতে পারতেন ঠিম। যদিও ‘ক্লে কোর্টের রাজা’ নাদালের কাছে দুইবারই হারতে হয়েছে রোলাঁ গারোর ফাইনাল। এবার নামতে হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সবচেয়ে সফল তারকার বিরুদ্ধে। ঠিম বলছেন, ‘রোলাঁ গারোতে দুইবার রাফায়েল নাদালের বিরুদ্ধে খেলেছি, ভাবতে গেলেই অবিশ্বাস্য লাগে। এখন এখানে (অস্ট্রেলিয়ান ওপেন) মুখোমুখি হচ্ছি নোভাকের, যে অস্ট্রেলিয়ার রাজা।’

/কেআর/পিকে/

লাইভ

টপ