অলিম্পিক পেছানোয় বয়সও বাড়লো ফুটবলারদের!

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৫৯, এপ্রিল ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০৩, এপ্রিল ০৪, ২০২০

করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবা ২০২০ টোকিও অলিম্পিককে পিছিয়ে দিয়েছে এক বছর। তবে ২০২১ সালের জুলাই-আগস্টে অনুষ্ঠেয় অলিম্পিক ২০২০ টোকিও নামেই পরিচিত হবে। নাম বদলাবে না, কিন্তু মাঝখানে তো এক বছরের ব্যবধান। ফিফা তাই ঠিক করেছে অলিম্পিকে ফুটবল দলের বয়সসীমাও এক বছর বাড়ানো হবে। অর্থাৎ অনূর্ধ্ব-২৩ বছর বয়সী নয়, ফিফার সংশোধিত আইন অনুযায়ী আগামী অলিম্পিকে খেলবে অনূর্ধ্ব-২৪ ফুটবল দল।

অলিম্পিকের আইন অনুযায়ী, অলিম্পিকের ফুটবল দলটি হয় অনূর্ধ্ব-২৩ বছর বয়সী। সঙ্গে অবশ্য তিনজন বেশি বয়সী খেলোয়াড়ও সুযোগ পায়। ফিফা বিশেষ পরিস্থিতির কারণে বয়সসীমাটা বাড়িয়ে করলো ২৪ বছর। অর্থাৎ যে সমস্ত খেলোয়াড়ের জন্ম ১৯৯৭ সালের ১ জানুয়ারি অথবা তার পর, তারাই টোকিও অলিম্পিকে খেলার জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। আগামী বছর ২৩ জুলাই টোকিওতে হবে ২০২০ টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধন।

অলিম্পিকে পুরুষ দলের বয়সসীমা নির্দিষ্ট আছে, মেয়েদের বেলায় যেটি নেই। মেয়েদের মূল জাতীয় দলই খেলতে পারে অলিম্পিক ফুটবলে। তবে গেমসের ফুটবল শুরু হয়ে যাবে আগেই। টোকিও অলিম্পিকের পুরুষ ফুটবলে ১৬ দলের প্রতিযোগিতায় এ পর্যন্ত টিকিট পেয়ে গেছে আর্জেন্টিনা, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল, ফ্রান্স, জার্মানি, স্পেন, রোমানিয়া, নিউজিল্যান্ড, মিসর, আইভরিকোস্ট, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ কোরিয়া ও স্বাগতিক জাপান।

করোনাভাইরাসের কারণে ফিফা এ বছর অনুষ্ঠেয় মেয়েদের দুটি বয়সভিত্তিক বিশ্বকাপ স্থগিত করেছে। মেয়েদের এ দুটি বয়সভিত্তিক বিশ্বকাপ হলো আগস্ট-সেপ্টেম্বরে পানামা ও কোস্টারিকায় নির্ধারিত অনূর্ধ্ব-২০ এবং নভেম্বরে ভারতের নির্ধারিত অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ। এটি পিছিয়ে দিয়েও ফিফা সূচি পুননির্ধারণ করেনি। তবে নিশ্চিত করে দিয়েছে যে জুনের আগে ছেলে ও মেয়েদের কোনও কোনও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট হবে না। ওই সময়টা সংরক্ষিত শুধু জাতীয় দলের খেলার জন্য। 

/পিকে/

লাইভ

টপ