‘শুধু ঘুমের মধ্যে’ই লা লিগা বাতিল হতে পারে!

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:১৫, এপ্রিল ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩০, এপ্রিল ০৮, ২০২০

Tebasজার্মান বুন্দেসলিগার বেশির ভাগ ক্লাবই আবার মাঠের অনুশীলনে ফিরেছে। গায়ের ছোঁয়া এড়িয়ে ৫ জনের গ্রুপে ভাগ হয়ে অনুশীলন করছে বায়ার্ন মিউনিখ, তাদের অনুসরণ করছে করছে বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখ বা ভলফসবুর্গ। তার মানে করোনাভাইরাসের কারণে স্থগিত হয়ে যাওয়া লিগ শেষ করার আশাটা ঠিকই বাঁচিয়ে রেখেছে জার্মানি। স্পেনের ক্লাবগুলোও আবার মাঠের অনুশীলনে ফেরার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে।

মঙ্গলবার লা লিগার সভাপতি হাভিয়ের তেবাস লিগ শুরুর সম্ভাব্য তিনটি তারিখ উল্লেখ করেছেন। তারিখ তিনটি ২৮ মে, ৬ এবং ২৮ জুন। সব ম্যাচ হয়তো স্টেডিয়ামের দুয়ার বন্ধ করে দর্শক অনুপস্থিতিই অনুষ্ঠিত হবে। একই সমান্তরালে চলবে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতার ম্যাচ, যদিও ঘরোয়া মৌসুম শেষ হওয়ার পরও তা হতে পারে।

তেবাস জানেন যে লা লিগার ভাগ্য এখনও ঝুলে আছে দেশের স্বাস্থ্য বিভাগের ওপর, কম করে হলেও ২৬ এপ্রিলের আগে লকডাউন  উঠছে না। কিন্তু প্রতিদিন তিনি নিয়ম করে উয়েফা, ইউরোপীয় ক্লাব অ্যাসোসিয়েশন আর  লিগগুলোর প্রধানদের সঙ্গে যোগাযোগ করে চলেছেন। সবার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা থেকে তার বিশ্বাস, ঘরোয়া মৌসুম আগস্টের মধ্যেই শেষ করে ফেলতে পারবেন। মৌসুমটাকে বাতিল করে দেওয়ার কথা কোনও অবস্থাতেই কেউ বিবেচনা করছেন না। ‘আমাদের সমীক্ষা চলছে এবং আমার নিশ্চিত মনে হচ্ছে যে ইউরোপীয় ও ঘরোয়া প্রতিযোগিতা শেষ হবে।’

ফুটবলের অর্থনীতিটাও ভালোই বোঝেন তেবাস। তার দাবি, খেলা না হওয়ার এই দুই মাসেই লা লিগা শতকরা ২৫ ভাগ রাজস্ব হারিয়েছে, আর লিগটা যদি শেষ না হয় তাহলে হারাবে ১ বিলিয়ন অর্থাৎ ১০০ কোটি ইউরো। লা লিগা যদি আবার শুরু হয়ে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে হয়, তাহলে ক্ষতির পরিমান হবে ৩০০ মিলিয়ন অর্থাৎ ৩০ কোটি ইউরো। চলমান করোনা-সংকটে তেবাস ফুটবলারদের বেতন কাটার পক্ষে আছেন, তবে কোনও অবস্থাতেই রাষ্ট্রীয় সহায়তা নেওয়াটা তিনি সমর্থন করেন না।

মৌসুম বাতিল হওয়ার কোনও সম্ভাবনা আছে কি না এবং ইউরোপীয় প্রতিযোগিতাগুলোর জন্য স্থান নির্ধারণ ও রেলিগেশন নিয়ে কী ভাবছেন, এ প্রশ্নে তেবাসের উত্তর, ‘ আমি এটা (লিগ বাতিল) শুধু ঘুমের মধ্যেই ভাবতে পারি, জেগে থাকলে নয়। যদি কখনও পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় যে না করলেই নয়, তখনই আমরা বাতিল করতে পারি।’  ‘বড় ও মাঝারি সারির লিগগুলো মৌসুম শেষ করে দেওয়ার কথা ভাবছেই না। আবার লিগ শুরু না করাটাকে আমরা কোনও বিকল্প হিসেবে ভাবছিই না’-বলেছেন লা লিগার সভাপতি।

 

/পিকে/

লাইভ

টপ