‘কোহলি কেন, তুলনা হোক পাকিস্তানি কিংবদন্তিদের সঙ্গে’

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:১৩, জুলাই ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৭, জুলাই ০৩, ২০২০

বাবর আজম। ছবি: টুইটারটি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পাকিস্তানের অধিনায়ক ছিলেন আগে থেকেই। গত মে মাসে বাবর আজমকে ওয়ানডের অধিনায়ক করা হলেই তুলনাটা উঠতে শুরু করে ভারতের বিরাট কোহলির সঙ্গে। তার উত্থান ও ব্যাটিংয়ে প্রতিশ্রুতি দেখেই পাকিস্তানের সাবেকরা, ভক্তরা, বিশেষজ্ঞরা তুলনা করছেন প্রায় প্রতিদিন, বারবার। এখন বোঝা গেল পাকিস্তানের ২৫ বছর বয়সী সীমিত ওভারের অধিনায়ক তুলনাটা পছন্দ করেন না। তিনি বরং বিরক্ত। তার কথা, তুলনা হলে হোক পাকিস্তানি ব্যাটিং কিংবদন্তি জাভেদ মিয়াঁদাদ, ইনজামাম-উল-হক বা ইউনিস খানের সঙ্গে, বারবার একজন ভারতীয়র সঙ্গে তার তুলনা টানা হবে কেন?

‘আপনি যদি কারো সঙ্গে আমার তুলনা করতে চান, আমি চাইবো বিরাট কোহলির বদলে পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের সঙ্গে তুলনা হোক। আমাদের তো জাভেদ মিয়াঁদাদ, ইউনিস খান, ইনজামাম-উল-হকের মতো কিংবদন্তিরা আছেন। এই কিংবদন্তিদের সঙ্গে তুলনা করাটাই আমার বেশি পছন্দ এবং তাদের মতো অর্জনেই আমি গর্ববোধ করবো’- টেলিকনফারেন্সে সাংবাদিকদের বলেছেন বাবর।

টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে বাবর যেমন এক নম্বর ব্যাটসম্যান, তেমনি বিরাট কোহলি শীর্ষে আছেন ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে।  টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে দুটি সংস্করণেই তার গড় ৫০-এর ওপর, টেস্টে অবশ্য একটু কম-সেটাও ৪৫-এর ওপর। অন্যদিকে কোহলিই এই সময়ের একমাত্র ব্যাটসম্যান তিনটি সংস্করণেই যার গড় ৫০-এর বেশি।

ছয়-সাত বছর ধরে যে ধারাবাহিকতায় রান করে চলেছেন কোহলি, তাতেই ক্রিকেট বোদ্ধারা বলছেন শচীন টেন্ডুলকারের বিশাল রানের রেকর্ড হয়তো একমাত্র তিনিই ভাঙতে পারেন। বিশেষ করে একদিনের ক্রিকেটে। এরইমধ্যে কোহলির নামের পাশে বসেছে ৭০টি আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি-যার ৪৩টি ওয়ানডেতে, ২৭টি টেস্টে।

লাল বলে অবশ্য বাবর আজমের শুরুটা তত ভালো নয়। তবে গত ১২ মাসে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটেও হেসে চলেছে তার ব্যাট। করোনাভাইরাস পরীক্ষায় ‘নেগেটিভ’ হওয়া যে ২০ সদস্যের পাকিস্তান দল ইংল্যান্ডে গেছে, সেটির গুরুত্বপূর্ণ একজন তিনি। ইংল্যান্ডের সঙ্গে আগামী মাসে শুরু তিন টেস্টের সিরিজে তাকে জেমস অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রড, জফরা আর্চারদের মুখোমুখি হতে হবে। দলের বড় এক নির্ভরতা তিনি। কেমন করবেন বাবর? ২০১৪ সালে কোহলি যখন প্রথম পূর্ণ সফরে যান ইংল্যান্ডে, খুবই বাজে কেটেছিল তার। তবে অধিনায়কের দায়িত্ব নিয়ে ২০১৮ সালের সফরে দুর্দান্ত করেছিলেন, সবচেয়ে বেশি রান এসেছিল তার ব্যাট থেকেই।

এদিকে আগামী ৮ জুলাই থেকে তিন টেস্টের সিরিজে মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রায় চার মাস করোনাভাইরাস-নির্বাসনে কাটানো ক্রিকেট আবার মাঠে ফিরছে এই সিরিজ দিয়েই।    

/পিকে/

লাইভ

টপ