চেনা ছন্দে বার্সেলোনা

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:২২, জুলাই ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৫, জুলাই ০৬, ২০২০

চেনা ছন্দে দেখা গেছে তাদের। এই সপ্তাহে সব দিক দিয়েই চেনা ছন্দে দেখা যায়নি বার্সেলোনাকে। ভিয়ারিয়ালকে ৪-১ গোলে হারিয়ে অবশেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে কাতালানরা। এই জয়ের ফলে শিরোপা লড়াইয়ে আপাতদৃষ্টিতে এখনও টিকে থাকলো মেসিরা।

মূলত শেষ দুটি ম্যাচে ড্র করে রিয়াল মাদ্রিদের হাতেই মোমেন্টাম তুলে দিয়েছে বার্সা। এই জয়ের পরও শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে বার্সার পয়েন্ট ব্যবধান থেকে যাচ্ছে চারে। ৩৪ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৭৭। আবার সমান ম্যাচে বার্সার সংগ্রহ ৭৩ পয়েন্ট। তাই বার্সার শিরোপা জয় এখন নির্ভর করছে রিয়ালের ওপরই!      

পুরো সপ্তাহ জুড়ে নানা কারণে মাঠের বাইরের ইস্যুতে বার্সাকে নিয়ে আলোচনা চলছিল। মেসির বার্সা ছেড়ে যাওয়ার গুঞ্জন তো ছিলই। কোচ সেতিয়েনের ভবিষ্যৎ নিয়েও রয়েছে নানা কথা। তার ওপর আন্তোয়ান গ্রিজমানকে মূল একাদশে না খেলানোয় তোপের মুখে পড়তে হয়েছে বার্সা কোচকে।

এই ম্যাচে অবশ্য প্রথম একাদশেই জায়গা হয়েছে ফরাসি তারকার। আর জায়গা পেয়েই প্রমাণ করে ছাড়লেন বসে থাকার পাত্র তিনি নন। লুইস সুয়ারেজ, আনসু ফাতিদের সঙ্গে নাম তুলেছেন স্কোর শিটে। অবশ্য মেসির অবদানও কম নয় এই পরিপূর্ণ পারফরম্যান্সে। দুটি অ্যাসিস্টই ছিল তার। তবে সব মিলিয়ে সপ্তাহের সেরা পারফরম্যান্সই উপহার দিয়েছে বার্সা।

এই ম্যাচে গ্রিজমান যেমন ফিরেছেন, বেঞ্চে বসতে হয়েছে রিকি পুইজ। তার বদলে সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে ছিলেন সের্জি রবের্তো। আর এই রবের্তোর কল্যাণেই আসে প্রথম গোল। দারুণ এক মুভে বল নিয়ে ছুটে বল দিয়ে দেন জর্ডি আলবাকে। তিনি গ্রিজমানের উদ্দেশে ক্রস করেছিলেন ঠিকই। তখন ভিয়ারিয়াল ডিফেন্ডার পাউ তোরেস পা বাড়ালে কপাল পোড়ে তাদেরই। আত্মঘাতী গোলের সুবাদে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। তবে আত্মঘাতী গোলের পর বার্সাকে কিছু সময়ের জন্য স্তব্ধ করে দিয়েছিল তারা। ১৩ মিনিটে মোরেনোর গোলে স্কোর লাইন হয়ে যায় ১-১।

বার্সেলোনা অবশ্য পাল্টা জবাব দেয় কিছুক্ষণ পর। ২০ মিনিটে মেসির বানিয়ে দেওয়া বল থেকে দলকে এগিয়ে নেন সুয়ারেজ। তৃতীয় গোলটি অবশ্য আরও সহজেই পেয়ে যেত তারা। আর্তুরো ভিদাল ঠিকমতো লক্ষ্যে রাখতে পারেননি বল। অবশেষে বার্সা তৃতীয় গোলটি পায় বিরতির কিছু আগে। ৪৫ মিনিটে মেসির দুর্দান্ত এক ব্যাক হিলে অসাধারণ এক চিপে জালে বল জড়ান গ্রিজমান।

এক ঘণ্টার মাথায় প্রথম দুটি পরিবর্তন আনেন সেতিয়েন। সুয়ারেজের বদলে নামে রাকিতিচ। আর সেমেদোর বদলে রিকি পুইজ। তাতে আধিপত্যে সেভাবে পরিবর্তন দেখা যায়নি। নতুন পরিবর্তনে এবার গ্রিজমানের বদলে নামেন আনসু ফাতি ও বুসকেৎজের বদলে ব্র্যাথওয়েট। ৮৬ মিনিটে আনসু ফাতির গোলেই স্কোর দাঁড়ায় ৪-১। তবে ৬৯ মিনিটে মেসি গোল করেছিলেন ঠিকই। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিসট্যান্ট রেফারির কারণে বাতিল হয়ে যায় তা। এছাড়া তার ফ্রি কিকসহ তিনটি শট সেভ করেছেন ভিয়ারিয়ালের গোলরক্ষক অ্যাসেঞ্জো।  

/এফআইআর/

লাইভ

টপ