সিরাজের দুর্ধর্ষ বোলিংয়ে লণ্ডভণ্ড কলকাতা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:২২, অক্টোবর ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:২৬, অক্টোবর ২২, ২০২০

মোহাম্মদ সিরাজ: ৮ রানে ৩ উইকেট                     -ছবি: আইপিএলবিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। টসজয়ী কলকাতা প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে করতে পারে মাত্র ৮৪ রান। আইপিএল ইতিহাসেরই অন্যতম স্বল্প দৈর্ঘ্যের এই ইনিংস ৩৯ বল হাতে রেখেই টপকে ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিয়েছে ব্যাঙ্গালোর। ম্যাচের সেরা ব্যাঙ্গালোরের ডানহাতি পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। তার দুর্ধর্ষ বোলিংয়েই কলকাতার এই হাল, চার ওভারে ২টি মেডেনসহ মাত্র ৮ রান খরচায় নিয়েছেন ৩ উইকেট।

এই জয়ে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে উঠে প্লে-অফ অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেললো গেল কোহলির দল। দশম ম্যাচে সপ্তম জয়ে তাদের পয়েন্ট ১৪। অন্যদিকে সমান ম্যাচে পঞ্চম পরাজয় ১০ পয়েন্ট পাওয়া কলকাতা রইলো চারেই। প্লে-অফে ওঠার লড়াইয়ে তারা চাপে পড়ে গেল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও রাজস্থান রয়্যালসের কাছে। ১০ ম্যাচ থেকে ৪টি করে জয় নিয়ে এই দুটি দলেরই পয়েন্ট ৮।

মরুর দেশ আরব আমিরাত ১৩তম আইপিএল এবার রেকর্ড দেখছে অনেক। বুধবার রাতে শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামও ব্যাঙ্গালোর-কলকাতা ম্যাচে কয়েকটি রেকর্ডর সাক্ষী হলো। কলকাতার ৮ উইকেটে ৮৪ রান অলআউট না হওয়া কোনও দলের সর্বনিম্ন স্কোর। একটি ইনিংসে ৪টি ওভার মেডেন যাওয়াও নতুন রেকর্ড। এককভাবে দুটি মেডেন আদায় করেও নতুন রেকর্ড গড়েছেন ব্যাঙ্গালোর পেসার সিরাজ।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে যাওয়া কলকাতা ২ ওভারেই ৩ রানে হারিয়ে বসে ২ উইকেট। দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলে রাহুল ত্রিপাঠিকে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন সিরাজ, পরের বলেই বোল্ড নীতিশ রানা। তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে নবদীপ সাইনির বলে ক্যাচ কলকাতার হয়ে ধারাবাহিকভাবে রান করে যাওয়া শুভমান গিল, ৪ রানে ৩ উইকেট যায় কলকাতার। চতুর্থ ওভারে সিরাজ টম ব্যান্টনকে আউট করে কলকাতাকে ৪ উইকেটে ১৪ রানে পরিণত করেন। এখান থেকে ইয়ন মরগানের সঙ্গে ১৮ রানের জুটি গড়ে দিনেশ কার্তিক এলবিডব্লিউ হয়ে যান যুজবেন্দ্র চাহালের লেগস্পিনে। পরে মরগান, কুলদীপ যাদব ও লকি ফাগুর্সনের ব্যাটিংয়েই ৮৪ রান করতে পারে কলকাতা। সর্বোচ্চ ৩০ রান করে ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন অধিনায়ক মরগান। ইনিংসের শেষ বলে রান আউট হওয়ার আগে ১২ রান করেছেন কুলদীপ। ১৯ রান করে অপারজিত থাকেন ফার্গুসন। ভালো করতে না পারা আন্দ্রে রাসেলকে এ ম্যাচ বাদ দিয়ে ইংলিশ ব্যাটসম্যান টম ব্যান্টনকে নামিয়েছিল কলকাতা।

জবাবে পাওয়ার প্লের ছয় ওভারে বিনা উইকেটে ৪৪ রান তুলে ফেলে ব্যাঙ্গালোর। সপ্তম ওভারে অ্যারন ফিঞ্চ ফার্গুসনের বলে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার এক বল পরে রান আউট হন অন্য ওপেনার দেবদূত পাড়িক্কাল। এরপর আর কোনও ঝুঁকি নেয়নি ব্যাঙ্গালোর। ধীরে-সুস্থে অবিচ্ছিন্ন ৩৯ রানের জুটি গড়ে ১৩.৩ ওভারে দলকে জয়ের লক্ষ্যে নিয়ে গেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও গুরকিরাত সিং। কোহলি আইপিএলে তার ৫০০তম ছক্কাটি মেরে অপরাজিত থাকেন ১৭ বলে ১৮ রান তুলে, গুরকিরাত অপরাজিত থাকেন ২১ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

কলকাতা: ২০ ওভারে ৮৪/৮(মরগান ৩০, ফার্গুসন ১৯*, কুলদীপ ১২, সিরাজ ৩/৮, চাহাল ২/১৫) ও ব্যাঙ্গালোর: ১৩.৩ ওভারে ৮৫/২(পাড়িক্কাল ২৫, গুরুকিরাত ২১*, কোহলি ১৮*, ফার্গুসন ১/১৭)।

/পিকে/

লাইভ

টপ