এপনিক পলিসি বৈঠকে বক্তারা: আইপিভি-সিক্সে যেতেই হবে

Send
হিটলার এ. হালিম, মেলবোর্ন থেকে
প্রকাশিত : ১০:০৮, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:১১, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

এপনিক-৪৯তম সম্মেলনের তৃতীয় দিনে পলিসি বৈঠক

আইপিভি-ফোর (ইন্টারনেট প্রটোকল) এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় ২০২২-২০২৩ সালের পরে আর থাকবে না। অন্য এলাকায় এর ব্যবহার নেই বললেই চলে। এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় যতটুকু এর ব্যবহার রয়েছে, তা এক কথায় চালিয়ে নেওয়া হচ্ছে। সেটা আর বেশিদিন চালানো যাবে না। ওটা পুরনো হয়ে গেছে। নতুন প্রযুক্তিতে তথা আইপিভি-সিক্সে আমাদের যেতেই হবে।

এপনিক-৪৯তম সম্মেলনের তৃতীয় দিন বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) পলিসি বৈঠকে বক্তারা এসব মন্তব্য করেন। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন এপনিকের পলিসি চেয়ার ও ফাইবার অ্যাট হোমের চিফ টেকনোলজি অফিসার সুমন আহমেদ সাবির। তিনি জানান, আগামী দিনের ইন্টারনেট কেমন হবে, কোন দিকে যাবে, কী কী ভ্যালু যুক্ত হবে, তার একটা রূপরেখা এই পলিসি বৈঠক থেকে পাওয়া যাবে। এপনিক-৫০তম সম্মেলন বাংলাদেশে হবে উল্লেখ করে সুমন আহমেদ সাবির ওই সম্মেলনে দেশের সব অপারেটরকে (ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ফোন অপারেটর ইত্যাদি) অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান।

বৈঠকে এশিয়া প্যাসিফিক জোনে ইন্টারনেট পলিসি কী হবে, সেসব নিয়েও আলোচনা হয়। পলিসির আপগ্রেডেশন, মডিফিকেশন বিষয়ে মত দেন অংশ গ্রহণকারীরা। বৈঠক শেষে জানতে চাইলে সুমন আহমেদ সাবির বলেন, ‘এবারের সম্মেলনে নতুন কোনও পলিসি নিয়ে আলোচনা হয়নি। বিদ্যমানগুলোকে মডিফিকেশন, স্পেসিফিকেশন কীভাবে করা যায়, সেসব বিষয়ে আমরা কিছু অভিমত পেয়েছি, সেগুলো বিবেচনায় নেওয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, এপনিক এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় আইপি ঠিকানা ও অটোনোমাস সিস্টেম নাম্বার নিয়ে কাজ করে।

পলিসি বৈঠকে জানানো হয়, আইপিভি-সিক্স বাস্তবায়নে এগিয়ে গেছে অনেক দেশ। এশিয়াতে এগিয়ে আছে জাপান, কোরিয়া, শ্রীলঙ্কা ইত্যাদি। বাংলাদেশ আইপিভি-সিক্স বাস্তবায়নে অনেক পিছিয়ে আছে, এর ব্যবহারের হার মাত্র ০.২ ভাগ। এ বছর সংশ্লিষ্টরা তা ২০ ভাগে উন্নীত করতে চান।

এছাড়া আজ  (বৃহস্পতিবার) একসেস সিকিউরিট বিষয়ে একটি কর্ম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ছিল একাধিক টিউটোরিয়াল সেশন।

সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন দেশের ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক। তিনি বাংলা ট্রিবিউন কে বলেন, ‘এপনিক-৫০ আগামী ৩-১০ সেপ্টেম্বর ঢাকায় লা মেরিডিয়ান হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে।’ এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা থেকে অন্তত ৫০টি দেশের কয়েকশত প্রতিনিধি অংশ নেবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরও জানান, এপনিক-৫০ আয়োজন করবে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি)।

এপনিক-৪৯ এর পর্দা নামছে আগামীকাল শুক্রবার। এদিন এপনিক নির্বাচনের ফল ঘোষণা, বার্ষিক সাধারণ সভা ও সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ের মধ্যমে শেষ হবে চার দিনের এই আয়োজন।

 

/এপিএইচ/

লাইভ

টপ