দেশি পেঁয়াজের কেজি এখনও ১০০ টাকা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:১০, অক্টোবর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৫০, অক্টোবর ১১, ২০১৯





পেঁয়াজখুচরা বাজারে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম সামান্য কমেছে। তবে দেশি পেঁয়াজের দাম সেভাবে কমেনি, প্রতি কেজি এখনও ৯০-৯৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। অনেক জায়গায় দেশি পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজি ১০০ টাকা। খুচরা বিক্রেতারা ভারতীয় ও মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর কাওরান বাজার, মানিকনগর বাজার, সেগুনবাগিচা কাঁচাবাজারসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।
সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন বাংলাদেশ-টিসিবিও বলছে, শুক্রবার ভারতীয় পেঁয়াজসহ আমদানি করা পেঁয়াজ ৮০ টাকা আর দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৯০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। টিসিবির তথ্য অনুযায়ী, গত এক বছরে খুচরা বাজারে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ১৪১ দশমিক ৬৭ ভাগ। গত বছরের ১১ অক্টোবর খুচরা বাজারে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম ছিল ২৫ টাকা। এখন সেই পেঁয়াজের দাম ৮০ টাকা। টিসিবির হিসাবে, গত এক মাসে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৫২ ভাগ। আর এক মাসে দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৬০ ভাগ।
মানিকনগর বাজারের ব্যবসায়ী আমিন উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘খুচরা বাজারে এখন পেঁয়াজের সরবরাহ বেশি। এ কারণে পেঁয়াজের দাম আগের চেয়ে একটু কমেছে। এখন ৮০ টাকা দরে আমদানি (ভালো মানের) পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। তবে দেশি পেঁয়াজের কেজি এখনও ১০০ টাকাই আছে।’
দেশি পেঁয়াজের দাম কমে না আসায় হতাশা ব্যক্ত করেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা শাহ আলম। তিনি বলেন, ‘দেশি পেঁয়াজ এখনও ১০০ টাকায় কিনতে হচ্ছে।’এটা সীমিত আয়ের মানুষদের ওপরে জুলুম বলেও মনে করেন তিনি।
সেগুনবাগিচা এলাকায় দেশি হাইব্রিড পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৯৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। মগবাজার কাঁচাবাজারে দেশি পেঁয়াজের প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে ১০০ টাকা দরে। মানিকনগর এলাকায় ভ্যানে করে দেশি হাইব্রিড পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৯৫ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে।
এদিকে, পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম আবারও সামান্য বেড়েছে। রাজধানীর কাওরানবাজার ও পুরান ঢাকার পাইকারি ব্যবসা কেন্দ্র শ্যামবাজারে প্রতি কেজি ভারতীয় পেঁয়াজ ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হয়। কয়েক দিন আগে পাইকারি বাজারে এই পেঁয়াজ ৫৫ টাকায় নেমেছিল।
কাওরানবাজার এলাকার পাইকারি ব্যবসায়ী রহমত ব্যাপারী বলেন, ‘আমদানি পেঁয়াজ পর্যাপ্ত আছে। তবে বেশ কিছু পেঁয়াজ পচে নষ্ট হয়ে গেছে। যে কারণে গত সপ্তাহের তুলনায় পাইকারি বাজারে দাম কিছুটা বেড়েছে।
এর আগে ভারত নিজেদের বাজার সামাল দিতে ২৯ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা দেয় । এই ঘোষণার পর বাংলাদেশে হু হু করে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ১১০ থেকে ১২০ টাকায় ওঠে। ভারতীয় পেঁয়াজ ৯০ টাকায় ওঠে।’
এদিকে, বাজারে ফার্মের মুরগির ডিম প্রতি ডজন ১১০-১১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া, শীতের আগাম সবজি শিম, ফুলকপি, পাতাকপি, মুলার পাশাপাশি বাজারে বেগুন, পটল, ঢেঁড়স, ঝিঙা, করলার পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও দাম আগের মতোই চড়া। বেশিরভাগ সবজির দাম কেজিপ্রতি ৫০ থেকে ৭০ টাকা। তবে প্রতি কেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৪০ টাকা করে। পাকা টমেটো প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৪০ টাকা কেজি। গাজর বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি।

/জিএম/এপিএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ