আইসিসি, তাসকিন ও মাশরাফির কান্না

Send
রায়হান মাহমুদ১১:৫৯, মার্চ ২১, ২০১৬

রায়হান মাহমুদরবিবার ভারতের হাই-টেক সিটি বেঙ্গালুরুতে প্রবাহিত হলো বাংলাদেশের কোটি কোটি ক্রিকেটামোদীর বুক ভাঙা বেদনার অশ্রু। মাশরাফি বিন মুর্তজা কাঁদলেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগের সংবাদ সম্মেলনে! জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বলে কথা, 'কোড অব কন্ডাক্ট' বা আচরণবিধির জালে যে তিনি আগাগোড়া বাঁধা! তিনি যদি বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক না হতেন আর না বসতেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আইসিসির নির্দিষ্ট করা আসনে, তাহলে হয়তো বেরিয়ে আসতো অনেক চমকপ্রদ তথ্য কিংবা ক্ষোভ। এদিন মাশরাফির চোখে অশ্রু শুধু বেদনার নয়, এর সঙ্গে মিশে আছে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমী জনতার ক্ষোভ আর হতাশাও।
মাশরাফি যখন বেদনায় নীল, তখন তাসকিনের কী অবস্থা? ২০০৯ সালে কেরানীগঞ্জে মাত্র ১৪ বছর বয়সে একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে গিয়ে প্রথম ওভারেই দুই উইকেট নিয়ে সবার নজর কেড়েছিলেন তাসকিন। এর আগে সিনিয়ররা খেলায় নিতে চাইতেন না। 'ছেলেটার বয়স অল্প, ও আমাদের লেভেলে খেলার যোগ্য হয়নি' এমনই ছিল তাদের মন্তব্য। কিন্তু তাদের ভুল প্রমাণিত করেছিলেন তাসকিন।
ম্যাচ শেষে ’খ্যাপ’ খেলার সম্মানী ছিল ২০০ টাকা। তাছাড়া দর্শকদের ২০/৫০/১০০ টাকার একাধিক নোটও উপহার পাওয়া সেই তাসকিন সাম্প্রতিককালে হয়ে ওঠেন বিশ্বের ক্রিকেট নয়নমনি।
সেই তাসকিনের ঘাড়ে যখন মাশরাফির 'পাগলা ঘোড়া' পেস আক্রমন ক্ষত-বিক্ষত করছে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের এমন সময়ই আইসিসি তাকে নিষিদ্ধ করলো। তার অপরাধ কী? কেন তিনি নির্বাসিত? সে উত্তরও অজানা। আইসিসির ব্যাখ্যায় নেই স্পষ্ট কোনও অভিযোগ। 'সাম অব হিজ অ্যাকশনস অয়্যার ফাউন্ড ইলিগ্যাল'  বলেছে আইসিসি। তাহলে তার শাস্তি কী সেটিতো আইসিসির ২.২.১৩ ধারায় স্পষ্ট  বলা আছে। এ ক্ষেত্রে বোলার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবেন, তবে তাকে সতর্ক করা হবে। বিস্ময়করভাবে তাসকিনের ক্ষেত্রে আইসিসি এ নিয়ম মানেনি। কিন্তু কেন? তার কোনও সদুত্তর নেই।
তাসকিনকে কেন নির্বাসিত করা হলো তারও কোনও স্পষ্ট ব্যাখ্যা নেই আইসিসির। তার স্টক ও ইয়র্কার লেংথের ডেলিভারিতে কোনও সমস্যা নেই বলেছে আইসিসি। বাউন্সারে সমস্যা, তাও সবগুলিতে নয়, তাহলে অ্যাসেসমেন্ট টেস্ট শেষে নিয়ম অনুযায়ী তাকে বলে দিলেই হতো যে, 'তুমি  এভাবে বাউন্সার দিলে নিষিদ্ধ হয়ে যাবে'। সে সুযোগও তাকে দেওয়া হলো না।

অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে চারটিসহ মোট ১৪টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে ২১টি উইকেট নেওয়ার পর ও ১৩টি আন্তজার্তিক টি-টোয়েন্টি খেলার পর আইসিসির বোধদয় হলো তাসকিনের বোলিং অ্যাকশনে ত্রুটি আছে! বিস্ময়কর নয় কি?

*** প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। বাংলা ট্রিবিউন-এর সম্পাদকীয় নীতি/মতের সঙ্গে লেখকের মতামতের অমিল থাকতেই পারে। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য বাংলা ট্রিবিউন কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না।

লাইভ

টপ