‘এসডিজি অর্জনে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ’

Send
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২০:৫১, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৭, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

জাতীয় সংসদ সচিবালয় ও ইউএনডিপি বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত কর্মশালা

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি অর্জনে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, ‘এসডিজি অর্জনে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। সরকারের কার্যক্রমের পাশাপাশি সংসদ সদস্যরা নিজ নিজ নির্বাচনি এলাকায় এসডিজির লক্ষ্য সংশ্লিষ্ট কর্ম-পরিকল্পনা গ্রহণ করতে পারেন।’

২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি অর্জনে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা কী হতে পারে সে বিষয়ে আয়োজিত একটি কর্মশালায় এসব কথা বলেছেন স্পিকার। শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে হবিগঞ্জের বাহুবলের দ্য প্যালেস রিসোর্টে জাতীয় সংসদ সচিবালয় ও ইউএনডিপি বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার বলেন, ‘আইন প্রণয়ন ও স্থানীয় জনগণের প্রতিনিধিত্ব করা মূল কাজ হলেও সংসদ সদস্যরা যুব উন্নয়ন, মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার প্রতিরোধ ও বাল্যবিবাহ রোধে কার্যকর ভূমিকা রাখছেন যা তৃণমূলে প্রশংসিত ও সমাদৃত হয়েছে।’

এসময় ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী আরও বলেন, ‘এসডিজি’র লক্ষ্যগুলো সংসদ সদস্যদের যথাযথভাবে অবহিত করার জন্য বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ পদক্ষেপ নিয়েছে এবং তৃণমূল পর্যায়ে সংসদ সদস্যরা জনগণকে সম্পৃক্ত করে এসডিজির লক্ষ্য অর্জনে কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ মন্ত্রণালয়ের কাজে আরও বেশি স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করতে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি গঠন করা হয়েছে যেখানে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।’ এছাড়াও এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশ সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বাড়াতেও কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

স্পিকার বলেন, ‘বাংলাদেশ বৈশ্বিক জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় নিজস্ব তহবিল গঠনের প্রথম নজির স্থাপন করেছে। আর সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পলিসি লিডারশিপ ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ অর্জনের মতো বিরল সন্মানে ভূষিত হয়েছেন।’

জাতীয় সংসদ সচিবালয় ও ইউএনডিপি বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত কর্মশালা

বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমানে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে প্রবেশ করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ভিশন ২০২১,বাংলাদেশকে শক্ত অর্থনৈতিক ভিতের ওপর সুপ্রতিষ্ঠিত করেছে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে।’ অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।’

 ইউএনডিপি-এর আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ এমপি, ইউএনডিপি-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জীসহ আরও অনেকে। এসময় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইউএনডিপির নিউইয়র্ক টিম লিডার মি. চার্লস স্যাভেল।

দুই দিনব্যাপী আয়োজিত এই কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউএনডিপি-এর সিনিয়র কনসালটেন্ট ও বঙ্গবন্ধু দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি। সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহেমদসহ ৩০ জন সংসদ সদস্য, ১২ জন সরকারি কর্মকর্তা এবং জাতিসংঘের ১০ জন প্রতিনিধি।

 

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ