মাওয়া প্রান্তে বসলো পদ্মা সেতুর আরেকটি স্প্যান

Send
মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৪:৩২, এপ্রিল ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৫০, এপ্রিল ১০, ২০১৯

মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান (ছবি: ফোকাস বাংলা)

আজ বুধবার (১০ এপ্রিল) মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর একটি স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) বসানো হয়েছে। স্প্যান ৩-এ দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে বসানো হয়েছে বলে প্রকৌশলীরা জানিয়েছেন। স্প্যানটি মাওয়া প্রান্তে স্থায়ীভাবে বসানো প্রথম স্প্যান। যদিও মাওয়া প্রান্তের ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে অস্থায়ীভাবে একটি স্প্যান রাখা আছে। তবে এটি সরিয়ে নেওয়া হবে। স্প্যান ৩-এ বসানো হলো ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর স্প্যান বসানোর খবর নিশ্চিত করে জানান, ‘মাওয়া প্রান্তের ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারে স্প্যান ৩-এ বসানো হয়েছে। এর আগে সকাল ৮টার দিকে মাওয়ার কুমারভোগের কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে স্প্যান রওনা দেয়।’

মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান (ছবি: মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি)

প্রকৌশলী সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত পদ্মা সেতুর ৮টি স্প্যান স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে এবং এর সব জাজিরা প্রান্তে। সে হিসেবে জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর ১২০০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে। অন্যদিকে, মাওয়া প্রান্তে একটি অস্থায়ী স্প্যান (স্প্যান ১-এফ) রাখা আছে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে। এটি বসানো হবে ৬ ও ৭ নম্বর পিলারে। কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে জায়গা না থাকায় স্প্যানটি ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে অস্থায়ীভাবে রাখা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর বসানো হয় পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান। এর প্রায় ৪ মাস পর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যানটি বসে। এর দেড় মাস পর ১১ মার্চ জাজিরা প্রান্তে ধূসর রঙের তৃতীয় স্প্যান বসানো হয়। এর ২ মাস পর ১৩ মে বসে চতুর্থ স্প্যান। এরপর এক মাস ১৬ দিনের মাথায় পঞ্চম স্প্যানটি বসে ২৯ জুন। ষষ্ঠ স্প্যানটি বসে ২৩ জানুয়ারি। আর সপ্তম স্প্যান বসে ২০ ফেব্রুয়ারি। গত ২০ মার্চ সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৪ ও ৩৫ নম্বর পিলারের ওপর বসে নবম স্প্যান। আজ মাওয়া প্রান্তে দশম স্প্যান বসানো হলো।
পদ্মা সেতুতে মোট ৪২টি পিলারে সর্বমোট ৪১টি স্প্যান বসবে। প্রতিটি স্প্যান ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের। মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের স্থায়ী ও অস্থায়ী স্প্যান উভয় মিলে সেতুর মোট দৃশ্যমান ১৩৫০ মিটার। আর বুধবার ৩-এ স্প্যান বসানোর পর দৃশ্যমান হলো সেতুর মোট ১৫০০ মিটার বা দেড় কিলোমিটার। তবে, তিনটি ভিন্ন মডিউলে বসানোর কারণে আপাতত স্প্যানগুলো বিচ্ছিন্নভাবে দৃশ্যমান থাকবে।

 

/এফএস/এমএমজে/

লাইভ

টপ