দেশে আইনের শাসন, ন্যায় বিচার ও মানবাধিকার নেই: মির্জা ফখরুল

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:১৩, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪১, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

 নিহত উপজেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীনের পরিবারকে সমবেদনা জানান মির্জ ফখরুল ইসলাম আলমগীরবিএনপি মহাসচিব ও বগুড়া সদর আসনের সংসদ সদস্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘দেশে আইনের শাসন নেই, ন্যায়বিচার নেই, মানবাধিকার নেই, এমনকি মানুষের জীবনের মূল্যও নেই। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির যে চরম অবনতি হয়েছে, বিএনপি নেতা শাহীনের নৃশংস হত্যাকাণ্ডে এর প্রমাণ পাওয়া যায়। বিচার ও ইনসাফ না থাকায় দেশে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা, ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা অব্যাহত রয়েছে। তাই দেশের মানুষকে সব অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে, রুখে দাঁড়াতে হবে।’

বৃহস্পতিবার বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত সদর উপজেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীনের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সমবেদনা জানান। পরে বেলা ১১টার দিকে তিনি শহরের ধরমপুর এলাকায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘সংগঠন ও রাজনীতি করাই শাহীনের অপরাধ, তাই তাকে জীবন দিতে হলো। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান খুবই ব্যথিত ও মর্মাহত। তাদের নির্দেশেই নিহত শাহীনের পরিবারকে সান্ত্বনা দিতে এসেছি। নেত্রী কারাগারে খুব অসুস্থ, হুইলচেয়ার ছাড়া চলাফেলা করতে পারেন না। আর তারেক রহমানও দেশের বাইরে আছেন। ’

এ সময় তিনি দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আমরা বগুড়াবাসীর পাশে ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো। নেতাকর্মীদের নিহত শাহীনের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যে কোনও প্রয়োজনে আমরা তাদের পাশে থাকবো। তিনি শাহীনের শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং ধৈর্য ধরতে বলেন। ’

সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত সদর উপজেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীনের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও তাদের সমবেদনা জানানোর পর বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে শহরের ধরমপুর এলাকায় নেতাকর্মী ও উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি’র রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, ‘এ সরকারের আমলে মানুষের জীবনের কোনও মূল্য নেই, হত্যার বিচার নেই। অবৈধ সরকারের দুঃশাসনের ধারাবাহিকতায় বিএনপি নেতা শাহীনকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি অবিলম্বে শাহীনের খুনিদের গ্রেফতার ও ফাঁসি দাবি করেছেন।’

বগুড়া জেলা বিএনপি সভাপতি সাইফুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, ‘শাহীন হত্যার পর থেকে তাদের আন্দোলন চলছে। এ হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথে থাকবো। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট একেএম মাহবুবর রহমান, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন, বগুড়া-৪ আসনে বিএনপির সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন, বিএনপি নেতা আলী আজগর তালুকদার হেনা, সাবেক এমপি গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, আহসানুল তৈয়ব জাকির, এম আর ইসলাম স্বাধীন, সিপার আল বখতিয়ার, শাহ মেহেদী হাসান হিমু, শাহাবুল আলম পিপলু প্রমুখ।

/জেবি/এমওএফ/

লাইভ

টপ