নির্মাণের ২ মাসের মধ্যে ধসে পড়লো ১০ কোটি টাকার রিটেনশন ওয়াল

Send
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৪৬, এপ্রিল ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৯, এপ্রিল ১৯, ২০১৯

ধসে পড়া রিটেনশন ওয়ালমাস দুয়েক আগে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) রিটেনশন ওয়াল (রাস্তার মাটি খালে পড়া রোধে নির্মিত দেয়াল) নির্মাণ করেছিল। কিন্তু ৬০ দিন পার হওয়ার আগেই আনুমানিক ২০০ মিটার ওয়াল খালে ধসে পড়েছে। বৃহস্পতিবার ( ১৮ এপ্রিল) বিকালে ঘটনাটি ঘটে।

কুসিক সূত্রে জানা গেছে, নগরীর নবাব বাড়ি চৌমুহনী থকে নোয়াগাঁও হয়ে বেলতলী ব্রিজ পর্যন্ত ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রিটেনশন ওয়াল নির্মাণ করা হয়েছিল। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমসিএইচএল এবং হক এন্টারপ্রাইজ যৌথভাবে এটি নির্মাণ করে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বাইরে থেকে দেখতে দৃষ্টিনন্দন হলেও দেয়াল নির্মাণের কাজে ব্যবহার করা হয়েছে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়েছে। নোয়াগাঁও থেকে বেলতলী পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় এই ওয়ালের কোথাও কোথাও বাঁকা ও ফাটল রয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, নিম্নমানের উপকরণ, যাচ্ছেতাই ডিজাইনের কারণে ওয়ালটি টেকসই হয়নি। ওয়ালের বাকি অংশের অবস্থাও নাজুক।

ধসে পড়া রিটেনশন ওয়াল

কুসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী শেখ নূরুল্লাহ জানান, পার্শ্ববর্তী রাস্তার মাটি তুলে রাখা ও বেকু ধারা খাল খননের কারণে রিটার্নিং ওয়ালের তলদেশের মাটি সরে যাওয়ায় ধসে পড়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমসিএইচএল এবং হক এন্টারপ্রাইজ যৌথ উদ্যাগ রিটার্নিং ওয়ালের নির্মাণ কাজ করে।

হক এন্টারপ্রাইজের মালিক ঠিকাদার এনামুল হক। এ বিষয়ে জানতে একাধিকবার তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

কুসিক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেছেন, ‘ধসে পড়ার পর বৃহস্পতিবার কুসিকের প্রকৌশলীরা উক্ত স্থানটি পরিদর্শন করেছেন। সঙ্গে ওয়াল্ড ব্যাংক কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। প্রাথমিকভাবে রেললাইন নির্মাণের ভারী যানবাহনের কারণে ঘটানটি ঘটেছে বলে ধারণা করছি। বিষয়টি তদন্ত করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ 

/এসটি/

লাইভ

টপ