এ সংসদ যে অবৈধ তা জাতিকে জানাতেই আমি শপথ নেইনি: মির্জা ফখরুল

Send
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:২৫, জুন ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৭, জুন ১৭, ২০১৯

ঠাকুরগাঁওয়ের বিএনপি আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরবিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ সংসদ যে অবৈধ তা বিএনপি’র মহাসচিব হিসেবে জাতিকে জানাতেই আমি শপথ নেইনি। এটা দলীয় সিদ্ধান্ত ছিল। সোমবার (১৭ জুন) দুপুরে হরিপুর উপজেলা বিএনপি আয়োজিত কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

বিএনপি’র বাকি সংসদ সদস্যদের সংসদে যোগদান করার যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করে মির্জা ফখরুল দলীয় কর্মীদের জানান, সরকারি নিপীড়নে বিএনপি রাস্তায় দাঁড়াতে পারে না, সভা-সমাবেশ করতে পারে না, নেতাকর্মীদের নামে মামলা দেওয়া হয়। এ অবস্থায় জনগণের সামনে আমাদের কথা জানাতে সংসদকে আমরা একটা মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছি।

নিরপেক্ষ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে আবারও নির্বাচন দাবি করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা স্বৈরাচার পতনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে নির্বাচনে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমাদের সেই অস্ত্র লুণ্ঠন করে আওয়ামী লীগ বন্দুকের জোরে ক্ষমতা দখল করেছে। জনগণকে পরাজিত করেছে, বিএনপি পরাজিত হয়নি। এজন্য আন্দোলন সৃষ্টি করে সরকারকে বাধ্য করতে হবে নতুন নির্বাচন দিতে।

তিনি বলেন, দেশে এই স্বৈরাচারী অবৈধ সরকারের আমলে বর্তমানে ২৬ লাখ মানুষ আসামি, যার মধ্যে বিএনপি’র আসামির সংখ্যা ১ লাখ। এছাড়াও আন্দোলন করতে গিয়ে গুম-খুন হয়েছেন অসংখ্য কর্মী।

উপজেলা বিএনপি সভাপতি আসগর আলীর সভাপতিত্বে কর্মিসভায় বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, কৃষক দলের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলামসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, দেশের মানুষের মুখে হাসি নেই, হাসি শোষকদের মুখে–লুটেরাদের মুখে। হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে বাজেট করা হয়েছে, যা চলে যাবে লুটেরাদের পকেটে। এই তালিকায় মন্ত্রী ও সচিবরাও রয়েছেন বলে অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল।

নির্বাচনের পর নিজ এলাকায় এটি তার প্রথম কর্মী সমাবেশ, যা রবিবার সন্ধ্যায় রুহিয়া থানার কর্মী সমাবেশের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। চার দিনের সফরের দ্বিতীয় দিনে সোমবার তিনি হরিপুর উপজেলা ছাড়াও বিকালে রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জ উপজেলা কর্মী সমাবেশে অংশ নেবেন।

/টিএন/এমওএফ/

লাইভ

টপ