behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

স্কুল কেবিনেট নির্বাচনে ব্যালট বাক্স ছিনতাই: নির্বাচন স্থগিত

বরিশাল প্রতিনিধি১৯:২৪, এপ্রিল ০১, ২০১৬

বরিশালবরিশালে এবার স্কুল কেবিনেট নির্বাচনে কেন্দ্র দখল ও ব্যালট বাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় একটি স্কুলের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) বরিশাল সদর উপজেলার চরবারিয়া ইউনয়নে কাগাসুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্কুলটির প্রধান শিক্ষক মো. শফিকুল ইসলাম জানায়, স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জহির শরীফের ভাইয়ের ছেলে দশম শ্রেণির ছাত্র হৃদয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিল। দুপুরে জহির হঠাৎ ১০ থেকে ১২ জন লোক নিয়ে ভোট কেন্দ্রে হট্টগোল সৃষ্টি করে। 
এসময় অন্য শিক্ষার্থীরা তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা মারধর করে। এতে ৭ম শ্রেণির ছাত্র সজল আহত হয়। এক পর্যায়ে ১ ও ৫ নং বুথের ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে নিয়ে যায় জহির শরীফ ও তার লোকজন।
১নং বুথের দায়িত্বে থাকা সহকারি শিক্ষক দেব শংকর ও ৫নং বুথের দায়িত্বে থাকা মোখলেছুর রহমান জানান, তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা (জহির শরীফের লোকজন) ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর করে ব্যালট বাক্স নিয়ে যায়।
এই ঘটনায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. শফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, দুপুরে জহির শরীফ স্কুলে এসে তার ভাইয়ের ছেলে হৃদয়কে নির্বাচিত ঘোষণা করেন এবং ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নিয়ে যান। এসময় বাধা দিতে গেলে তিনি আমাকে লাঞ্ছিত করেন।
স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে বিদ্যালয়ে মোট ৭২৯ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণের কথা। মোট ৮টি পদে ২৭ প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।
বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আপাতত স্কুলের কেবিনেট নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।
জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফুন্নাহার আফরোজ জানান, জেলায় মোট ৩৪০টি মাধ্যমিক স্কুল এবং ১৫৬টি মাদ্রাসায় কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে একটি কেন্দ্রে কিছু সমস্যা হয়েছে বলে শুনেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।
অভিযুক্ত জহির শরীফের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে  তিনি বলেন, সেখানে একটি পক্ষ ঝামেলা করেছিল, তাই তারাও প্রতিবাদ করেছে। এরপরই তিনি ফোন কেটে দিয়ে মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখেন।
/এনএস/এআর/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ