Vision  ad on bangla Tribune

মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলাসংসদ সদস্য রানাসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি১৬:০৪, এপ্রিল ০৬, ২০১৬

টাঙ্গাইলের বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার ঘটনায় টাঙ্গাইল-৩ আসনের সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা ও তার তিন ভাইসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বুধবার দুপুরে সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতের বিচারক এ আদেশ দেন।

অভিযুক্ত সংসদ সদস্য আমানুর রহমান রানা

মামলার অন্য আসামিরা হলেন সংসদ সদস্যদের তিন ভাই টাঙ্গাইল পৌর সভার সাবেক মেয়র সহিদুর রহমান খান মুক্তি, টাঙ্গাইল চেম্বার্স অ্যান্ড কমার্স (ব্যবসায়ী ঐক্যজোট) সভাপতি জাহিদুর রহমান খান কাকন ও ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি সানিয়াত খান বাপ্পা এবং সাংসদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী কবির হোসেন, সমীর, যুবলীগের তৎকালীন নেতা আলমগীর হোসেন (চাঁনে), নাসির উদ্দিন (নুরু), ছানোয়ার হোসেন এবং দারোয়ান বাবু ওরফে দাঁত ভাঙ্গা বাবু। এরা সবাই পলাতক রয়েছেন।

টাঙ্গাইলের গোয়েন্দা  পুলিশ শাখার (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফিজুর রহমান জানান, সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত টাঙ্গাইল সদরের বিচারক মো. আমিনুল ইসলাম অভিযোগপত্র গ্রহণের শুনানি শেষে ওই ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

Farook--Hotta-Kando
এর আগে গত ৩ ফেব্রুয়ারি মোট ১৪ জনের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন। ২০১৪ সালের মার্চে ওই মামলায় রাজা নামের এক সন্ত্রাসী পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রাজা এ হত্যা মামলায় টাঙ্গাইলের প্রভাবশালী খান পরিবারের চার ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা থাকার কথা স্বীকার করেন। এরপর থেকে আলোচিত খান পরিবারের চার ভাই পলাতক রয়েছেন।

/বিটি/টিএন/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ