‘গাল্লিবয়’ রানার পাশে ইউটিউবার তৌহিদ আফ্রিদি

Send
বিনোদন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:১২, আগস্ট ২৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:১৯, আগস্ট ২৮, ২০১৯

তৌহিদ আফ্রিদি, রানা ও তবীবপথশিশু রানার উত্থান যেন রূপকথার রাজপুত্রের মতোই। আর সেই রূপকথার রচয়িতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মাহমুদ হাসান তবীব। দুজনের ‘গাল্লিবয়’ সিরিজের পরপর ৩টি গান সাম্প্রতিক বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ইউটিউব কনটেন্ট।
জনপ্রিয় এই গাল্লিবয় রানার পাশে দাঁড়ালেন সাম্প্রতিক সময়ের আরেক তুমুল জনপ্রিয় ইউটিউবার তৌহিদ আফ্রিদি। জানালেন, এইচএসসি পর্যন্ত রানার লেখাপড়ার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। এতে সম্মতি জানিয়ে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন রানার আবিষ্কারক তবীবও।
তবীব বলেন, ‘এরমধ্যে তিনি রানাকে স্কুলে ভর্তি করাতে গিয়েছি। কিন্তু বছরের মাঝামাঝি বলে আর ভর্তি করানো যায়নি। তবে জানুয়ারিতে ভর্তি করানোর ইচ্ছে আছে। সমস্যা হচ্ছে আমি নিজেও ছাত্র।’
যদিও কোন স্কুলে রানাকে ভর্তি করাবেন সেটি এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি ঢাবি শিক্ষার্থী তবীব। বেতনের বিষয়টিও গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, তিনি নিজেও একজন ছাত্র। মূলত এসব আলাপ শুনে তৌহিদ আফ্রিদি আগ্রহ প্রকাশ করেন। বলেন, ‘তবীব ভাই অনুমতি দিলে এখন থেকে এইচএসসি পর্যন্ত রানার লেখাপড়ার সকল দায়িত্ব আমার।’
অন্যদিকে আফ্রিদির এমন আগ্রহে হাসিমুখে সম্মতি দেন তবীব। এ নিয়ে রানাও বেশ উচ্ছ্বসিত।
কামরাঙ্গীরচরের ৮ নম্বর গলিতে বেড়ে ওঠা রানাকে নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মাহমুদ হাসান তবীবের এমন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন ইউটিউবার তৌহিদ আফ্রিদি। তিনি বলেন, ‘এভাবে বাকি রানাদের পাশেও আমাদের সবার দাঁড়ানো উচিত।’
নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তৌহিদ আফ্রিদি ‘গাল্লিবয় রানা’কে নিয়ে একটি ভ্লগ প্রকাশ করেন ২৭ আগস্ট। সেখানে দেখা যায়, তৌহিদ আফ্রিদি তবীব ও রানার সঙ্গে দেখা করতে ছুটে যান ঢাবি ক্যাম্পাসে। এরপর তারা ঘুরে বেড়ান বিভিন্ন শপিং সেন্টারে। রানাকে কিনে দেন খেলনা, পুতুল ও সাইকেল। খাওয়ান পুরান ঢাকায়। আর কথা দেন তার শিক্ষার দায়িত্ব নেওয়ার।
তবীব-রানাকে নিয়ে তৌহিদ আফ্রিদির ভ্লগ:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঘুরে বেড়ানো আর দশটা পথশিশুর মতো রানাও একজন। থাকে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকায়। তবে ঢাবি ক্যাম্পাস এলাকাতেই সারা দিন ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় তাকে। ছোট্ট এই শিশুটি দারুণ র‌্যাপ গান গায়। ক্যাম্পাসে ঘুরে ঘুরে গান শোনানোর বিনিময়ে ২-৫ টাকা চেয়ে নেয় মানুষের কাছ থেকে। এটাই ছিল রানার পরিচিতি।
কথায় কথায় চলতি বছরের গেল মে-জুন মাসের কোনও একদিন রানার সঙ্গে পরিচয় হয় ঢাবি শিক্ষার্থী তবীবের। অন্যদিকে মাত্রই বলিউডে মুক্তি পেয়েছে রণবীর সিংয়ের ‘গাল্লিবয়’ চলচ্চিত্রটি। তবীব যেন বাস্তবেই পেয়ে গেলেন সেলুলয়েডের রণবীর সিংকে।
ব্যস, রানাকে নিয়ে কাজে নেমে পড়েন তিনি। এরপর ‘গাল্লিবয়’ এক, দুই ও তিন নম্বর গান প্রকাশ করে দুজনেই উঠে যান ইতিহাসের পাতায়।
যে গানের কথায় তবীব ও রানা তুলে ধরেন গরিব, পথশিশুদের অধিকার আদায়ের কথা।
গাল্লিবয় পার্ট থ্রি:


/এমএম/

লাইভ

টপ