চমকের রাতে এমিতে সেরা ‘গেম অব থ্রোনস’ ও ‘ফ্লিব্যাগ’

Send
জনি হক
প্রকাশিত : ১৯:৩১, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১৭, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯

গেম অব থ্রোনের জয়জয়কারএইচবিও চ্যানেলের ‘গেম অব থ্রোনস’ চতুর্থবারের মতো এমি অ্যাওয়ার্ডসে সেরা ড্রামা সিরিজ পুরস্কার জিতলো। আর সবাইকে চমকে দিয়ে সেরা কমেডি সিরিজের সম্মান বাগিয়ে নিলো ‘ফ্লিব্যাগ’।
রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে জাঁকজমক আয়োজনে ৭১তম প্রাইমটাইম এমি অ্যাওয়ার্ডসের বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
প্রাইম ভিডিওর ‘ফ্লিব্যাগ’ সিরিজের লেখক-অভিনেত্রী ফিবি ওয়ালার-ব্রিজ এমির রাতটা নিজের করে নিয়েছেন! অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওর সিরিজটির সুবাদে সেরা অভিনেত্রী (কমেডি) ও সেরা গল্পকার (কমেডি) পুরস্কার দুটি একাই জিতেছেন তিনি।

এমিতে ছয়বার সেরা কমেডি অভিনেত্রীর পুরস্কারজয়ী জুলিয়া লুইস-ড্রেফাস (ভিপ) ও এই বিভাগে গতবারের সেরা র‌্যাচেল ব্রসনাহানকে (দ্য মার্ভেলাস মিসেস মাইজেল) হটিয়ে সেরার স্বীকৃতি পেয়েছেন ফিবি ওয়ালার-ব্রিজ। তার লেখা ‘ফ্লিব্যাগ’ সেরা পরিচালক (কমেডি সিরিজ) বিভাগের পুরস্কার এনে দিয়েছে হ্যারি ব্র্যাডবিয়ারকে।

ফিবি ওয়ালার-ব্রিজের লেখা আরেক সিরিজ ‘কিলিং ইভ’-এর জন্য সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন ব্রিটিশ নবাগতা জোডি কামার। বিবিসি আমেরিকার এই ড্রামা সিরিজে মানসিক ব্যাধিতে আক্রান্ত খুনির চরিত্রে দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়েছেন তিনি।

প্রবীণদের চেয়ে এবার নবীনদের জয়জয়কার। এমির ইতিহাসে প্রথম সমকামি কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে সেরা ড্রামা সিরিজের অভিনেতা হয়েছেন বিলি পর্টার। এফএক্স নেটওয়ার্কের ‘পোজ’ সিরিজে অভিনয় করেছেন ৫০ বছর বয়সী এই তারকা। অস্কার ও মেট গালায় অদ্ভুত পোশাক পরার সুবাদে আলোচনায় ছিল তার নাম।

টেলিভিশনে হলিউডের সর্বোচ্চ সম্মাননা এমি অ্যাওয়ার্ডসের ৭১তম আসর হয়ে গেলো এবার। এর মধ্যে এইচবিওর ঘরে এসেছে মোট ৩৭টি পুরস্কার। এসবের বেশিরভাগই এনে দিয়েছে ‘গেম অব থ্রোনস’। এতে টিরিয়ন লানিস্টার চরিত্রে দারুণ অভিনয়ের সুবাদে সেরা পার্শ্ব অভিনেতা (ড্রামা) হয়েছেন পিটার ডিঙ্কলেজ। সিরিজটির জন্য মনোনীত বাকি আট অভিনয়শিল্পীর কেউই শেষ হাসি হাসতে পারেননি।

এইচবিও চ্যানেলের আরেক সিরিজ ‘চেরনোবিল’ পেয়েছে দ্বিতীয় সর্বাধিক ১০টি পুরস্কার। ১৯৮৬ সালের ২৬ এপ্রিল চেরনোবিল পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে ভয়াবহ দুর্ঘটনাকে ঘিরে তৈরি হয়েছে এটি।

অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওর কমেডি সিরিজ ‘দ্য মার্ভেলাস মিসেস মাইজেল’ আটটি বিভাগে সেরা হয়েছে। এর মধ্যে টনি শ্যালুব পার্শ্ব অভিনেতা ও অ্যালেক্স বোর্সটাইন পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন।

লিমিটেড সিরিজ বিভাগে সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন মিশেল উইলিয়ামস। এফএক্স নেটওয়ার্কের ‘ফস/ভেরডন’-এ ব্রডওয়ে গায়িকা ও নৃত্যশিল্পী জেন ভেরডন চরিত্রে মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন তিনি।

একই বিভাগে ‘হোয়েন দে সি আস’ সিরিজের জন্য নবীন অভিনয়শিল্পী জারেল জেরোম সেরা অভিনেতার সম্মান পেয়েছেন। নেটফ্লিক্সের এই সিরিজে দেখানো হয়েছে, আশির দশকে নিউ ইয়র্কে ধর্ষণের কারণে ভুলভাবে অভিযুক্ত ও কারাভোগ একজন মানুষের গল্প।

প্রথমবার এমি জেতা অন্যদের মধ্যে আছেন জুলিয়া গার্নার। নেটফ্লিক্সের মাদক পাচার বিষয়ক থ্রিলার ‘অজার্ক’-এ অভিনয়ের জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী (ড্রামা) হয়েছেন তিনি। অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওর ‘অ্যা ভেরি ইংলিশ স্ক্যান্ডাল’-এ নৈপুণ্য দেখিয়ে লিমিটেড সিরিজে সেরা পার্শ্ব অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন ব্রিটিশ তারকা বেন হুইশো।

৭১তম এমির প্রথম সারির বিভাগগুলোর বিজয়ী তালিকা
সেরা ড্রামা সিরিজ: গেম অব থ্রোনস
সেরা কমেডি সিরিজ: ফ্লিব্যাগ
সেরা ভ্যারাইটি টক শো: লাস্ট উইক টুনাইট উইথ জন অলিভার
সেরা ভ্যারাইটি স্কেচ সিরিজ: স্যাটারডে নাইট লাইভ
সেরা লিমিটেড সিরিজ: চেরনোবিল
সেরা টেলিভিশন মুভি: ব্ল্যাক মিরর: ব্যান্ডারসন্যাচ
সেরা অভিনেতা (কমেডি): বিল হেডার (ব্যারি)
সেরা অভিনেতা (ড্রামা): বিলি পর্টার (পোজ)
সেরা অভিনেতা (লিমিটেড সিরিজ কিংবা মুভি): জারেল জেরোম (হোয়েন দে সি আস)
সেরা অভিনেত্রী (কমেডি): ফিবি ওয়ালার-ব্রিজ (ফ্লিব্যাগ)
সেরা অভিনেত্রী (ড্রামা): জোডি কামার (কিলিং ইভ)
সেরা অভিনেত্রী (লিমিটেড সিরিজ কিংবা মুভি): মিশেল উইলিয়ামস (ফস/ভেরডন)
সেরা পার্শ্ব অভিনেতা (কমেডি): টনি শ্যালুব (দ্য মার্ভেলাস মিসেস মাইজেল)
সেরা পার্শ্ব অভিনেতা (ড্রামা): পিটার ডিঙ্কলেজ (গেম অব থ্রোনস)
সেরা পার্শ্ব অভিনেতা (লিমিটেড সিরিজ কিংবা মুভি): বেন হুইশো (অ্যা ভেরি ইংলিশ স্ক্যান্ডাল)
সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী (কমেডি): অ্যালেক্স বোর্সটাইন (দ্য মার্ভেলাস মিসেস মাইজেল)
সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী (ড্রামা): জুলিয়া গার্নার (অজার্ক)
সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী (লিমিটেড সিরিজ কিংবা মুভি): প্যাট্রিসিয়া আর্কেট (দ্য অ্যাক্ট)
সেরা পরিচালক (কমেডি সিরিজ): হ্যারি ব্র্যাডবিয়ার (ফ্লিব্যাগ)
সেরা পরিচালক (ড্রামা সিরিজ): জেসন বেইটম্যান (অজার্ক)
সেরা পরিচালক (লিমিটেড সিরিজ, চলচ্চিত্র কিংবা ড্রামাটিক স্পেশাল): ইওহান রেঙ্ক (চেরনোবিল)
সেরা পরিচালক (ভ্যারাইটি সিরিজ): ডন রয় কিং (স্যাটারডে নাইট লাইভ)
সেরা গল্পকার (কমেডি সিরিজ): ফিবি ওয়ালার-ব্রিজ (ফ্লিব্যাগ)
সেরা গল্পকার (ড্রামা সিরিজ): জেসি আর্মস্ট্রং (সাকসেশন)
সেরা গল্পকার (লিমিটেড সিরিজ, চলচ্চিত্র কিংবা ড্রামাটিক স্পেশাল): ক্রেগ মাজিন (চেরনোবিল)
সেরা গল্প (ভ্যারাইটি সিরিজ): লাস্ট উইক টুনাইট উইথ জন অলিভার
সেরা প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান: রুপল’স ড্র্যাগ রেস

সূত্র: রয়টার্স

/জেএইচ/এম/

লাইভ

টপ