মাজারে হামলার প্রতিক্রিয়াপাকিস্তানজুড়ে ব্যাপক নিরাপত্তা অভিযান শুরু, অন্তত ৩০ সন্দেহভাজন নিহত

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:৫৪, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩০, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭

পাকিস্তানে ব্যাপক নিরাপত্তা অভিযান শুরু হয়েছেপাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের শেহওয়ান এলাকার সুফি মাজারে বোমা হামলার প্রতিক্রিয়ায় শুক্রবার সূর্যোদয়ের আগে থেকে দেশজুড়ে নিরাপত্তা অভিযান শুরু হয়েছে। এর অংশ হিসেবে এরইমধ্যে বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীকে হত্যা করার কথাও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর ভিন্ন ভিন্ন বিবৃতি ও সরকারি সূত্রকে উদ্ধৃত করে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন বলছে, এখন পর্যন্ত ওই অভিযানে ৩০ জনেরও বেশি সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। এ অভিযান আরও কয়েকদিন ধরে চলবে বলেও ইঙ্গিত মিলেছে।
নাম প্রকাশ না করে পাকিস্তানের এক সরকারি কর্মকর্তা ফরাসি সংবাদমাধ্যম এএফপিকে বলেন, ‘কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ ভোর শুরুর আগে থেকে অভিযান শুরু করে। বিভিন্ন শহর থেকে বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’
সামনের কয়েকদিনও এ অভিযান চলবে বলে জানান তিনি।
আধাসামরিক বাহিনী রেঞ্জার্সের দেওয়া বিবৃতিকে উদ্ধৃত করে ডন জানায়, রাতভর সিন্ধু প্রদেশে চালানো অভিযানে অন্তত ১৮ জন সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।’
আহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে
আবার পুলিশ কর্মকর্তারা আলাদাভাবে ডনকে জানিয়েছেন, খাইবার পাখতুনখোয়াতে চালানো অভিযানে আরও ১১ সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। আর পেশাওয়ারের রেগিতে চালানো আরেকটি অভিযানে নিহত হয় তিন সন্দেহভাজন। কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, সন্দেহভাজনদের কাছ থেকে তারা অস্ত্র ও হ্যান্ড গ্রেনেড উদ্ধার করেছেন।

নিরাপত্তা সূত্রকে উদ্ধৃত করে ডন আরও জানায়, নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে এক বন্দুকযুদ্ধে চার সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। সন্দেহভাজনরা ওরাকজাই এজেন্সির একটি চেকপোস্টে হামলার চেষ্টা করেছিল বলে দাবি করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। 

এর আগে লাল শাহবাজ মাজারে হামলার সঙ্গে জড়িত কাউকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন পাকিস্তানি সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া। এ ঘটনার নেপথ্যের কুশীলবদের খুঁজে বের করে প্রতিশোধের মাধ্যমে এই আক্রমণের জবাব দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের শেহওয়ান এলাকার লাল শাহবাজ কালান্দার নামের সুফি মাজারে বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় অর্ধশতাধিক মানুষ নিহত হয়। আহত হয়েছে দেড়শ’ মানুষ। পাকিস্তানে শতাব্দী ধরে সুফিবাদ চর্চা হয়ে আসছে। লাল শাহবাজ কালান্দার হলো দেশটির সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ সুফি মাজার। বৃহস্পতিবার ছিল স্থানীয় সুফিদের জন্য বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ দিন। মাজারে ব্যাপক লোক সমাগম হওয়ার পর বোমা হামলা ঘটানো হয়। পাকিস্তান পুলিশের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা শাব্বির সেথার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে টেলিফোনে নিশ্চিত করে বলেন, এই হামলায় অন্তত ৭২ জন নিহত ও ১৫০ জন আহত হয়েছেন। মৃতদের তালিকা ক্রমেই বাড়ছে। নিহতদের সংখ্যা এখনও সঠিকভাবে জানা যায়নি। তবে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন ও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এবং রয়টার্সের মতে, এখন পর্যন্ত ৭০ জনেরও বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। তবে ভারতের আরেক সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার দাবি, নিহতের সংখ্যা প্রায় ১০০। 

/এফইউ/

লাইভ

টপ