প্রতিদিন অনাহারে প্রাণ হারায় ১৬০০ শিশু

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:০১, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৯, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮

বিশ্বে প্রতিদিন ১ হাজার ৬০০ শিশুর না খেয়ে মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছে শিশুদের নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান সেভ দ্য চিলড্রেন। সংস্থাটি জানায়, যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকায় থাকা পাঁচ বছরের কম বয়সী ৪৫ লাখ শিশু পুষ্টিহীনতায় ভুগছে। এদের মধ্যে ৫ লাখ ৯০ হাজার শিশুর মৃত্যু হতে পারে।

সেভ দ্য চিলড্রেন জানায়, ‘বর্তমান যে হার, তাদের প্রতি তিনজনের দুইজন শিশু চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হবেন। ফলে প্রাণ হারাবেন ৫ লাখেরও বেশি শিশু। তারা জানায়, প্রতি মিনিটে ক্ষুধা যন্ত্রণায় বিশ্বে ১৬০০ শিশু মারা যায়। ফলে মিনিটে মারা যায় একজন  

জাতিসংঘের জরুরি আবেদনে সাড়া দিয়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলগুলোতে কাজ করছে সেভ দ্য চিলড্রেন। সংস্থটির প্রধান নির্বাহী হেলে থর্নিং জানান, বছরের পর বছর আমরা দেখছি অনাহারকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। সিরিয়া, ইয়েমেন ও দক্ষিণ সুদানে এই চিত্র খুবই স্পষ্ট।

জাতিসংঘের শিশু ও সশস্ত্র সহিংসতা বিষয়ক সংস্থা জানায়, ২০১৭ সালে ১৪৬০টি ক্ষেত্রে শিশুদের বিরুদ্ধে ‘গর্হিত’ মানবধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে। ২০১৬ সালে এই সংখ্যা ছিলো ১ হাজার ১৪ জন।

এর আগে সেভ দ্য চিলড্রেন জানিয়েছিলো, দারিদ্র্য, সংঘাত ও কন্যাশিশুর প্রতি বৈষম্যের ঝুঁকিতে রয়েছে বিশ্বের মোট শিশুর অর্ধেক। এক প্রতিবেদনে তারা দাবি করে, ১২০ কোটি শিশু আলাদাভাবে এই তিনটি ঝুঁকিতে আছে। এদের মধ্যে ১৫ কোটি ৩০ লাখ শিশু একসঙ্গে তিনটি ঝুঁকির মুখে রয়েছে।

আন্তর্জাতিক শিশু দিবসকে সামনে রেখে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দারিদ্র্য কবলিত দেশগুলোতে ঝুঁকির মুখে বাস করছে প্রায় ১০০ কোটি শিশু, যুদ্ধ ও সংঘাত ২৪ কোটি শিশুর জীবনকে প্রভাবিত করছে এবং নারীদের বিরুদ্ধে বৈষম্য স্বাভাবিক বিষয় এমন দেশে ৫৭ কোটি ৫০ লাখ কন্যাশিশু রয়েছে ঝুঁকির মুখে।

/এমএইচ/

লাইভ

টপ