জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা জারি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:০০, জুন ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০২, জুন ১৮, ২০১৯

জাপানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ৬ দশমিক ৮ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। ইতোমধ্যে সুনামি সতর্কতা জারি করেছে সরকার। তবে ভূমিকম্পের কারণে প্রাণহানি কিংবা ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার কোনো খবর এখনো পাওয়া যায়নি। 

মঙ্গলবার দেশটির উত্তর উপকূলে আঘাত আনা ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল জাপান সাগরের সাত মাইল গভীরে। হোনসু দ্বীপ থেকে ৫৩ মাইলে দূরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। দেশটির আবহাওয়া-সংক্রান্ত সংস্থা ওসব অঞ্চলের সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় দ্বীপেগুলোতেও সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, সমুদ্র উপকূলে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি গতির ঢেউ আছড়ে পড়ছে। এমনটা দেখা যাওয়ার পর দেশটির ইয়ামগাতা, নিগাতা, ইশিকাওয়া নামক অঞ্চলগুলোতে জরুরি সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে।দেশটির সংবাদমাধ্যম এনএইচকে মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছে, তারা যেন সুনামি দেখার জন্য ওইসব এলাকায় সমুদ্র উপকূলের কাছাকাছি না যায়।

ভূমিকম্পের কাছেই পারমাণিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থাকলেও কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা গেছে।

ভূমিকম্পের দেশ’ হিসেবে পরিচিত জাপান বারবার বড় বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে। ভূমিকম্প, ভূমিকম্প থেকে সৃষ্ট সুনামিসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে সবসময় প্রস্তুত থাকতে হয় জাপানিদের। ভূ-তাত্ত্বিকদের মতে, জাপান প্রশান্ত মহাসাগরীয় ‘রিং অব ফায়ার’ অঞ্চলে অবস্থিত। বাংলায় যার অর্থ হয় ‘আগুনের গোলা’। ‘রিং অব ফায়ার’ এমন একটি কাল্পনিক বেল্ট যা ঘোড়ার খুর আকৃতির মতো প্রধানত প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলকে ঘিরে রেখেছে। রিং অব ফায়ারে যেসব অঞ্চল অন্তর্ভুক্ত হয়েছে সেগুলো পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে ভূমিকম্পপ্রবণ। এই রিং অব ফায়ারই ৯০ শতাংশ ভূমিকম্পের কারণ।

/এমএইচ/

লাইভ

টপ