কাশ্মির ইস্যু জাতিসংঘের আদালতে তুলবে পাকিস্তান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:২৮, আগস্ট ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪০, আগস্ট ২১, ২০১৯

কাশ্মির ইস্যুতে ভারতের সঙ্গে বিরোধ আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) নেওয়ার কথা ভাবছে পাকিস্তান। মঙ্গলবার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি জানিয়েছেন, জাতিসংঘের মূল বিচারিক সংস্থা আইসিজে’তে কাশ্মির ইস্যু তুলে ধরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। দেশটির এক সম্প্রচারমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, সব ধরনের আইনগত দিক খতিয়ে দেখে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি ভারত।

৫ আগস্ট (সোমবার) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়। জম্মু-কাশ্মিরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে পার্লামেন্টে একটি বিলও পাস করা হয়েছে। এই পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে কাশ্মিরজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত সেনা। ভারতের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করে আসছে পাকিস্তান। আর ভারত কাশ্মির ইস্যুকে নিজেদের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে দাবি করে আসছে।

দিল্লির সিদ্ধান্তের জেরে ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় দূতকে বহিষ্কার করে পাকিস্তান। ছিন্ন করা হয় সব ধরনের বাণিজ্যিক ও দ্বিপাক্ষিক যোগাযোগ। কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের উদ্যোগে চীনের ডাকে গত ১৬ আগস্ট রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। অনানুষ্ঠানিক ওই বৈঠকের সিদ্ধান্তের পরে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই জানানো হয়নি।

নিরাপত্তা পরিষদের ওই বৈঠকের পরে এবার কাশ্মির ইস্যু জাতিসংঘের মূল বিচারিক সংস্থা আইসিজে’তে নিয়ে যাওয়ার কথা জানালো পাকিস্তান। দেশটির সম্প্রচারমাধ্যম এআরআইকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি বলেন, ‘কাশ্মির মামলা আমরা আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ সব ধরনের আইনগত দিক খতিয়ে দেখে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। এই মামলার মূল বিষয় হবে কাশ্মিরে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের মানবাধিকার লঙ্ঘন।

পাকিস্তানের এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করেননি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র। তবে কাশ্মিরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে দিল্লি।

 

/জেজে/এমওএফ/

লাইভ

টপ