অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কাশ্মির সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন ভারতের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৮:৫৯, অক্টোবর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০০, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

পাকিস্তান সমর্থিত জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে গত দুই মাস ধরে জম্মু-কাশ্মিরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলওসি) মোতায়েনকৃত সেনাদের সংখ্যা বাড়িয়েছে ভারত। রবিবার ভারতের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, পাকিস্তান সমর্থিত জঙ্গিরা জম্মু-কাশ্মিরের ৩৭০ ধারা বাতিলকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা তৈরির পাঁয়তারা করছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস এখবর জানিয়েছে।

নর্দার্ন আর্মি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল রণবীর সিং জানান, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল ও জম্মু-কাশ্মিরকে দ্বিখণ্ডিত করার পর যে ক্ষোভ জনগণের মধ্যে ছিল তা কমে আসছে। কিন্তু পাকিস্তান চেষ্টা করছে তাদের জঙ্গি হাতিয়ারের মাধ্যমে সীমান্তের এপারের এলাকা অস্থিতিশীল করতে।

ভারতীয় সেনা কর্মকর্তা বলেন, ৫ আগস্টের পর হতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক অস্ত্রবিরতি চুক্তি ও অনুপ্রবেশের ঘটনা প্রতিদিন ঘটছে। এলওসি ঘিরে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে নর্দার্ন কমান্ডের বাইরে থেকে আমরা সেনা এনে শক্তি বাড়িয়েছি। এছাড়া সীমান্তের আরও কাছাকাছি সেনাদের মোতায়েন করা হয়েছে। সীমান্তের কোনও এলাকা অরক্ষিত নেই। বেশিরভাগ অনুপ্রবেশের চেষ্টা আমরা ঠেকিয়ে দিয়েছি।

তবে অভিযানের নিরাপত্তার স্বার্থে সেনা মোতায়েনের বিস্তারিত তথ্য জানাননি এই ভারতীয় কর্মকর্তা। তবে বিষয়টি সম্পর্কে জ্ঞাত অপর দুই সেনা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এলওসিতে কয়েক হাজার অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

৫ আগস্ট ভারত অধিকৃত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করে দেয় দিল্লি। ওই দিন সকাল থেকে কার্যত অচলাবস্থার মধ্যে নিমজ্জিত হয় দুনিয়ার ভূস্বর্গ খ্যাত কাশ্মির উপত্যকা। এই পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে কাশ্মিরজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুলসংখ্যক অতিরিক্ত সেনা। ঘটনার আগেরদিন থেকে ইন্টারনেট-মোবাইল পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়। গ্রেফতার করা হয়েছে সেখানকার বিপুলসংখ্যক স্বাধীনতাপন্থী ও ভারতপন্থী রাজনৈতিক নেতাকে।

 

/এএ/

লাইভ

টপ