ভারতের বিধানসভা নির্বাচন: মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় এগিয়ে বিজেপি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:২৭, অক্টোবর ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩২, অক্টোবর ২৪, ২০১৯

ভারতের মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচনে এগিয়ে আছে ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। বৃহস্পতিবর সকাল আটটায় ভোট গণনা শুরু হয়। চূড়ান্ত ফল না আসলেও বুথফেরত জরিপে এখন পর্যন্ত বিজেপিই এগিয়ে রয়েছে।

সোমবার ১৮ টি রাজ্যের ৫১ টি বিধানসভা আসন এবং দুটি লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সেই কেন্দ্রগুলিরও ভোট গণনা শুরু হয় বৃহস্পতিবার সকালে। বিজেপি এবং তার মিত্রদের এই বিধানসভা আসনগুলির মধ্যে প্রায় ৩০ টি আসন ছিল, আর কংগ্রেসের ছিল ১২ টি। বাকী গুলি আঞ্চলিক দলগুলির।

ভোটগ্রহণের পর থেকেই বুথফেরত জরিপে বিজেপির জয়ের আভাস মিলছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী মহারাষ্ট্রে বিজেপি এবং শিবসেনা জোট ২৮৮ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১২১ আসনে এগিয়ে রয়েছে। কংগ্রেস এবং ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপি) ৪৬ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে গেলে পেতে হবে মোট ১৪৫ টি আসন।

আর হরিয়ানায় বিজেপি ৯০ টি আসনের মধ্যে আপাতত ৪৮ টিতে এগিয়ে রয়েছে এবং কংগ্রেস ১৮টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্যে যে কোনও দলকে পেতে হবে ৪৬ টি আসন। বিজেপির জয়ের অর্থ হল এখানে মনোহর লাল খাট্টারের সরকার ফের ক্ষমতায় বসতে চলেছে।

গত পাঁচ বছরে মহারাষ্ট্রে শিবসেনার সঙ্গে নানা সময়ে বিজেপির মতবিরোধ হলেও এই নির্বাচনেও তাঁরা শিবসেনার সঙ্গেই জোট বেঁধে লড়েছে। ২০১৪ সালে যখন দুটি দলের মধ্যে অল্প সময়ের এক বিচ্ছেদ হয়েছিল তখন দুই দলের কেউই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে সফল হয়নি। শিবসেনা সেই সময় রাজ্য ও কেন্দ্রের বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের নীতি বিরুদ্ধে প্রচুর সমালোচনা করে।

বিরোধী দল, বিশেষত কংগ্রেসের জন্যে এই নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কেননা তাঁরা ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই করছে। লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবি এবং দলের শীর্ষ পদ থেকে রাহুল গান্ধি সরে যাওয়ার পরে নেতৃত্বের পরবর্তী পরিস্থিতিতে সংকট দেখা দিয়েছে, যদিও আপাতত অস্থায়ীভাবে সামাল দিচ্ছেন সোনিয়া গান্ধি। 

/এমএইচ/

লাইভ

টপ