যে প্রক্রিয়ায় ছিনতাই হয় মিসরের বিমান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:২৬, মার্চ ২৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:২৬, মার্চ ২৯, ২০১৬

মঙ্গলবার মোট ৬২ আরোহী নিয়ে আলেক্সান্দ্রিয়া থেকে কায়রোর উদ্দেশে যাত্রা করে মিসরের এমএস১৮১ বিমানটি। হঠাৎ করে যাত্রীদের একজন বলে ওঠেন তার শরীরে বিস্ফোরক বেল্ট পরা আছে।
বিমানের পাইলটের বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে মিসরের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বিস্ফোরণের হুমকি দিয়ে ওই যাত্রী বিমানটিকে সাইপ্রাসের লারকানায় অবতরণ করাতে বাধ্য করান।’
সাইপ্রাসের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বিমানটিতে একজন ছিনতাইকারী রয়েছেন। তার সঙ্গে মিসরের বিমান কর্তৃপক্ষের চলমান আলাপের এক পর্যায়ে বিমানের ৭ ক্রু আর ৪ বিদেশি নাগরিককে জিম্মি রেখে বাকিদের ছেড়ে দিতে রাজি হন তিনি।
তবে ওই ছিনতাইকারীর সঙ্গে আদৌ কোনও বিস্ফোরক আছে কিনা সে ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন দেশটির বিমান চলাচলবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইহাব রাসলান। তিনি বলেন, ‘ছিনতাইকারীর কাছে আদৌ কোনও বিস্ফোরক আছে কিনা সে ব্যাপারে আমরা সন্দিহান। কারণ মিসরের সকল বিমানবন্দরে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জারি থাকে। তবে এ ব্যাপারে আমরা পরে নিশ্চিত হতে পারব।’

এখনও ছিনতাইকারীর সঙ্গে মিসরের একটি দলের আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, লারনাকা বিমানবন্দরে আপাতত ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রয়েছে। অপেক্ষমাণ ফ্লাইটগুলো অন্যত্র ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় প্লেনটি আলেকজান্দ্রিয়া থেকে ৮২ জন যাত্রী নিয়ে উড্ডয়ন করে। এর কিছুপরই এটি ছিনতাইয়ের শিকার হয় বলে এয়ারলাইন্সটির এক মুখপাত্র জানিয়েছেন। সূত্র: বিবিসি

/এফইউ/বিএ/

লাইভ

টপ