নাইপলের মৃত্যুতে শোকাহত বিশ্বসাহিত্য অঙ্গন

Send
আবীর আদনান
প্রকাশিত : ১৪:৪১, আগস্ট ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:২৫, আগস্ট ১৩, ২০১৮

 


নোবেলজয়ী লেখক স্যার বিদ্যাধর সূর্যপ্রসাদ (ভি.এস.) নাইপল আর নেই। ৮৫ বছর বয়সে গত শনিবার লন্ডনে তার নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুসংবাদ ঘোষণা করেন তার স্ত্রী নাদিরা নাইপল।

নাইপলের মৃত্যুতে শোকাহত বিশ্বসাহিত্য অঙ্গন। সমসাময়িক জনপ্রিয় লেখকগন ভিন্ন ভিন্ন মাধ্যমে তাদের শোক প্রকাশ করেছেন।

আজ সকালে টুইটার বার্তায় সালমান রুশদি শোক প্রকাশ করে লেখেন, “আজীবন সাহিত্য এবং রাজনীতি নিয়ে আমাদের মতবিরোধ ছিলই; এই দুই বিষয়ে আমরা কখনো একমতে পৌঁছতে পারিনি। কিন্তু তারপরও নাইপলের চলে যাওয়ায় আমি যে বেদনা অনুভব করছি তা কোন অংশেই বড় ভাই হারানোর বেদনা থেকে কম নয়। ভি এস নাইপল শান্তিতে থাকুন।”

নাইপলের মৃত্যু সংবাদ ঘোষণার পর ওয়াশিংটন পোস্টকে দেওয়া এক টেলিফোন সাক্ষাৎকারে নাইপলের বন্ধু আমেরিকান ভ্রমণ সাহিত্যিক ও ঔপন্যাসিক পল থ্রোক্স শোক প্রকাশ করে বলেছেন, “ অসুস্থতার কাছে পরাজিত হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করলেও তার কাজের জন্য তিনি অমর হয়ে থাকবেন। তিনি তার সাহিত্যকর্মের জন্য যে স্বীকৃতি লাভ করেছেন তা অবশ্যই গর্ব করার মতো। আমাদের সময়ের একজন শ্রেষ্ঠ লেখক হিসেবেই তিনি সময়ে থাকবেন। তিনি তার জীবদ্দশায় যা যা লিখেছেন সবই সচেতন ভাবেই লিখেছেন, একজন স্পষ্টভাষী লেখক হিসেবেই আমি তাকে সংজ্ঞায়িত করবো। নাইপল ভালো থাকুন”

ব্রিটিশ উপন্যাসিক এবং সাংবাদিক হ্যারি কুনযরু টুইটারে শোক প্রকাশ করে বলেছেন, “বিবিসিতে আমি একবার স্যারের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম। প্রথমে আমরা যখন দুজনে পাশাপাশি বসেছিলাম তার প্রথম কথা ছিলো, “সাক্ষাৎকার নেওয়ার আগে বলো, আমার কোন কোন লেখা তুমি পড়েছ এবং অবশ্যই মিথ্যা বলবে না, তবেই আমি সাক্ষাৎকার দেওয়া শুরু করতে পারি”। আজ সেই কথাগুলো খুব মনে পড়ছে। স্যারের প্রতি শ্রদ্ধা।”

নাইপলের মৃত্যুতে দীর্ঘ এক শোকবার্তায় ভারতীয় লেখক অমিতাভ ঘোষ যা লিখেছেন তার সারাংশ এরকম- “আমার কিশোর বয়সে যখন নাইপলের প্রবন্ধ প্রথম পড়ি, তখন নিজেকে খুঁজে পেতে শুরু করি অন্যভাবে। তার লেখা পড়ার পর সমসাময়িক অন্য ইংরেজ লেখকদের রচনা পড়লে এ বিষয়টি পরিষ্কার হবে। এতো বড় একজন লেখকের শূন্যস্থান কখনোই পূরণ হওয়ার নয়।”

স্কটিশ ঐতিহাসিক এবং লেখক উইলিয়াম ডালরিম্পল বলেছেন, “আমি ‘জায়ান্ট’ শব্দটি ভি.এস. নাইপলের জন্যই ব্যবহার করি। যদিও অনেকক্ষেত্রে তার অনেক মতামতের সাথে, বিশেষ করে ভারত নিয়ে তার বিভিন্ন মতামতের সাথে আপনি একমত হবেন না। হয়তো তার অনেক লেখা আপনাকে অনুপ্রাণিতও করবে না। কিন্তু তারপরও আমি বলবো নাইপল ছিলেন একজনই। তিনি বেঁচে থাকবেন তার কাজের মাধ্যমে।”   

//জেডএস//

লাইভ

টপ